অবৈধ বোমা মেশিন বন্ধের দাবীতে তামাবিল সড়কের সারীঘাটে বারকি শ্রমিকদের অবরোধ

0
147

জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ জৈন্তাপুর উপজেলার সারী নদী থেকে অবৈধ বোমা মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধের দাবী জানিয়ে সিলেট তামাবিল জাফলং সড়কের সারীঘাট দক্ষিণ বাজারে রাস্তা অবরোধ করেন স্থানীয় বারকি শ্রমিক ও ব্যবসায়ীগণ ।

সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ও বিকেল দুই দফায় অন্তত ৩ ঘন্টা সিলেট তামাবিল মহাসড়ক রাস্তা অবরোধ করে রাখা হয়। সকাল ৮ থেকে ১১টা পর্যন্ত এবং বিকেল ৪ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত অবরোধ কর্মসূচি চলে।

পরবর্তীতে সন্ধ্যায় উপজেলা নিবার্হী অফিসার আল-বশিরুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বশির উদ্দিন, জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর আহমেদ, দরবস্ত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বাহারুল আলম বাহার, আলীরগাও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাশেম আনোয়ার সাহাদাত, সাবেক ছাত্রনেতা ইলিয়াস আলী লিপু সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিগনের মধ্যস্থতায় রাস্তার অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার আল-বশিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, বালু মহালের চলমান বোমা মেশিন সমস্যা নিয়ে মঙ্গলবার সকালে উভয় পক্ষের সাথে উপজেলা প্রশাসন বারকি শ্রমিক, ব্যবসায়ী এবং সারী নদী ইজারাদার সহ যৌথ বৈঠকে অনুষ্ঠিত হবে। আশা করি বৈঠকে বিষয়টি সুন্দর ভাবে সমাধান হবে।

সারীঘাট বারকি শ্রমিক সমিতির সভাপতি আমীর আলী জানান, সারি নদীতে অবৈধ বোমা মেশিন বন্ধের জন্য শ্রমিকরা রাস্তা অবরোধ করেন। প্রশাসন সুষ্ট সমাধানের আশ্বাস দেওয়ায় আমরা রাস্তার অবরোধ প্রত্যাহার করে নিয়েছি। আশা করি বৈঠকে শ্রমিকদের কথা চিন্তা করে সারী নদী থেকে বোমা মেশিন সরিয়ে নেওয়া হবে।

জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বশির উদ্দিন জানান, রাস্তা অবরোধকারী শ্রমিকদের সাথে আলোচনার পর তাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করা হয়েছে। পরে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রশাসন শ্রমিক, ব্যবসায়ী এবং বালু মহাল ইজারাদর কে নিয়ে যৌথ বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা করে সুষ্টু সমাধান করার কথা রয়েছে।

অবরোধ চলাকালে রাস্তার উভয় পাশে ছোট বড় অনেক যানবাহন আটকা পড়ে। এতে যাত্রী সাধারণ-কে নানা দূভোর্গের মধ্যে পড়তে হয়।