আওয়ামী লীগ দেশকে অন্যের হাতে তুলে দিতে চায় : খালেদা জিয়া

    0
    215

    আমারসিলেট 24ডটকম , সেপ্টেম্বর  : জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন,  আওয়ামী লীগ সরকার স্বাধীনতার পক্ষের সরকার। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার কথা বলে দেশকে অন্যের হাতে তুলে দিতে চায়। তারা যদি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি হতো তাহলে সীমান্তে হত্যাকারীদের বিষয়ে নীরব থাকতেন না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ দেশের উন্নয়ন করার জন্য ক্ষমতায় আসেনি। তারা ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করার জন্য, লুটপাট করার জন্য ক্ষমতায় এসেছে। খালেদা বলেন, ফেলানীর লাশ কাঁটাতারে ঝুলে। খুনিরা পার পেয়ে গেল। আজ সোমবার বিকেলে রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠে ১৮ দলের মহা সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এ কথা বলেন। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির যুগ্মমহাসচিব মিজানুর রহমান মিনু।
    বর্তমান সরকারকে অথর্ব সরকার মন্তব্য করে খালেদা জিয়া বলেন, এ অথর্ব সরকার দিয়ে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা যায় না। এরা দেশ ও জনগণের শত্রু উল্লেখ করে তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা কখনো দেশকে অন্যের হাতে তুলে দিতে দিবেন না। তিনি বলেন, এ সরকারের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। তারা যখন যা ইচ্ছা করছে। যখন যা খুশি আইন করছে। তারা দেশজুড়ে অরাজকতা শুরু করেছে। আমরা সরকারে গেলে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করব ইনশাআল্লাহ। সরকারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, চুরি করা যাবে না, দুর্নীতি করা যাবে না। জুলুম করা যাবে না। কারণ এগুলো করে নির্বাচনে জেতা যাবে না। রাজশাহীবাসী তা দেখিয়ে দিয়েছে।
    ১৮ দলীয় জোট সরকার ক্ষমতায় গেলে দেশ থেকে মাদক নির্মূল করা হবে উল্লেখ করে খালেদা জিয়া বলেন, এ সরকার ক্ষমতায় এসেছে দেশের মানুষের উপকার করার জন্য নয়, লুটপাট করার করার জন্য এবং ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার জন্য। তিনি বলেন, ফেলানীকে যেভাবে মারা হলো তার বিচার পেল না।

    অথচ সরকার আমাদের মুখ বন্ধ করে রাখতে চায়, সীমান্ত থেকে মানুষকে পাখির মতো ধরে নিয়ে যায়। অথচ সরকার কিছুই করে না। তিনি বলেন, এভাবে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা হবে না। তারা দেশকে অন্যের হাতে তুলে দিতে চায়। কিন্তু জনসভায় যারা মুক্তিযোদ্ধা আছেন তারা দেশকে কখনো অন্যের হাতে তুলে দেবে না। তাই আপনাদের দেশের চিন্তা করা উচিত। দেশের মানুষের কথা চিন্তা করা উচিত।
    এর আগে আজ দুপুর ২টার পর থেকে ১৮ দলীয় জোটের বিভাগীয় মহাসমাবেশের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। এর পর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা বক্তৃতা করেন। এর আগে মঞ্চে ছিলেন জাসাস শিল্পীরা। আগতদের উদ্দেশ্যে পরিবেশন করেন একের পর এক সংগীত। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী কনক চাঁপা মঞ্চে ওঠেন। পরপর দুটি গান পরিবেশন করেন তিনি।
    এর পর মঞ্চে ওঠেন মনির খাঁন। তিনি পরিবেশন করেন ‘আমরা চাই বাংলাদেশে জনগণের সরকার’ শীর্ষক একটি গান। ওই গানের সাথে কণ্ঠ মেলান আগত কর্মী-সমর্থকরা। এরপর আসেন রিজিয়া পারভীন। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী বেবি নাজনিন,  হাসান চৌধুরী ও নায়ক উজ্জল। এর আগে মঞ্চে সংক্ষিপ্ত অভিনয় নিয়ে হাজির হন অভিনেতা শিবা সানু। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার।