আজ মেসির আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হচ্ছে রোনাল্ডোর পর্তুগাল

    0
    219

    আমারসিলেট24ডটকম,১৮নভেম্বরঃ  আজ মঙ্গলবার লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হচ্ছে ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর পর্তুগাল। ম্যাচটি শুরু হবে আজ দিবাগত রাত ১টা ৪৫ মিনিটে এবং সরাসরি দেখাবে সনি সিক্স। আর এ ম্যাচকে সামনে রেখে এখন সকলের দৃষ্টি ২ দলের ২ তারকা খেলোয়াড় রোনাল্ডো এবং মেসির উপর।

    অবশ্য ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফিরে এসে নিজের পুরোনো মাঠে রোনাল্ডো চেষ্টা করবেন মেসিকে ছাড়িয়ে যেতে, এমন ইঙ্গিতই পাওয়া গেছে। রিয়াল মাদ্রিদের ফরোয়ার্ড রোনাল্ডো এবং বার্সেলোনা স্ট্রাইকার লিওনেল মেসি বর্তমানে নিজেদের বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় প্রমানের লড়াইয়ে মেতে রয়েছেন। পর্তুগীজ আইকনের সাবেক ঘরের মাঠে এ লড়াই দেখার অপেক্ষায় এখন পুরো বিশ্ব।

    বিশেষ করে স্প্যানিশ লীগে ২ চির প্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাবে খেলার কারনেই এ ২ সেরা তারকার লড়াইটা আরো বেশী জমজমাট হয়ে উঠেছে।
    নিজেদের মধ্যে ব্যক্তিগত সম্পর্ক যাই হোক না কেন এ দুজন গত এক দশক ধরে একাধারে সবগুলো সেরার পুরস্কার নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নিয়েছেন। নিয়মিতভাবে দলীয় এবং ব্যক্তিগত পুরস্কার প্রাপ্তিতে তারা নিজেদের সমৃদ্ধ করেছে। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে মেসির দল ৩ বার জিতলেও রোনাল্ডো জিতেছেন দু’বার।

    আবার মেসির ঝুলিতে আছে ৬টি লীগ শিরোপা, রোনাল্ডোর রয়েছে ৫টি। এর মধ্যে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ৩টি এবং রিয়ালের পক্ষে একটি।
    নিজেদের মধ্যে তারা শেষ ৬টি ব্যালন ডি অ’র পুরস্কার ভাগাভাগি করে নিয়েছেন। বিশ্বের সেরা ফুটবলারের এ পুরস্কার ম্যানেজার, খেলোয়াড় এবং সাংবাদিকদের ভোটে নির্বাচিত হয়। এ সময়ের মধ্যে আর্জেন্টাইন তারকা মেসি এ পুরস্কার জিতেছেন ৪ বার এবং রোনাল্ডো জিতেছেন বাকি দুবার। চলতি বছর ৩য়বারের মত রোনাল্ডো এ পুরস্কারের আশা করতেই পারেন।

    কিন্তু অনেকেই আবার ভিন্নমত পোষন করে মেসি এবং বিশ্বকাপ জয়ী জার্মান দলের কয়েকজন খেলোয়াড়ের কথা উল্লেখ করেছেন।
    ইতোমধ্যেই লীগে ১৮ গোল করে ফেলেছেন রোনাল্ডো। অন্যদিকে মেসি তার মান অনুযায়ী নিজের যোগ্যতার প্রমান এখনো দিতে পারেননি। এখন পর্যন্ত তার গোলসংখ্যা ৭। যদিও এবারের বিশ্বকাপে তিনিই পেয়েছেন টুর্ণামেন্ট সেরার পুরস্কার। তবে ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশীপের বাছাইপর্ব এবং টুর্নামেন্ট ইতিহাসে সর্বাধিক গোলের রেকর্ড এখন রোনাল্ডোর। সব মিলিয়ে ২৩ গোল করে তিনি ডেনমার্কের ডাল টমাসনের রেকর্ড ভেঙ্গেছেন। পর্তুগালের হয়ে ১১৭ ম্যাচে তার গোলসংখ্যা ৫৭টি।
    ২০০৯ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে মাদ্রিদে যাবার পরে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মত রোনাল্ডো ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে খেলতে আসছেন। এর আগে ২০১৩ সালের মার্চে তার গোলেই রিয়ালের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ থেকে বিদায় নিয়েছিল ম্যানচেস্টার। কিন্তু আজকের এ প্রীতি ম্যাচকে ঘিড়ে এখন পর্যন্ত টিকেট বিক্রি ততটা সন্তোষজনক না হওয়ায় অনেকেই হতাশা ব্যক্ত করেছেন। তবে নতুন করে পুরোনো মাঠে ফেরার সুযোগ পেয়ে সন্তুষ্টি জানিয়েছেন রোনাল্ডো।

    তার মতে এখানে ফিরে আসাটা সবসময়ই বিশেষ কিছু। আশা করছি পুরো স্টেডিয়াম আমার সাথেই থাকবে। এ ম্যাচের মাধ্যমে আরো ফিরে আসছেন সাবেক সিটি ও ইউনাইটেড স্ট্রাইকার কার্লোস তেভেজ। জুভেন্টাসের এ তারকা আর্জেন্টাইন ৩ বছর পর গত সপ্তাহে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে জাতীয় দলে ফিরেছেন।