আদালতের নিষেদাজ্ঞা অমান্য করে পুলিশ সহায়তায় জমি দখল

    0
    243

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৫মার্চ,রেজওয়ান করিম সব্বির:সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার জ্বাল দলিল সৃষ্টিপূর্বক এবং আলাদতের নিষেদাজ্ঞা অমান্য করে নিরীহ পরিবারের জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

    সরেজমিনে গিয়ে দেখাযায়- দীর্ঘ দিন থেকে দরবস্ত ইউনিয়নের তেলিজুরী গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে ছয়ফুল আমীন আপোষ ভাগ বাটোয়ারার মাধ্যমে পৈতিক জমিতে বসতবাড়ী নির্মাণ পূর্বক পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছেন। সম্প্রতি একটি ভূমি খেকু চক্র একই গ্রামের সামছুজ্জামান, রনিফৌদ গ্রামের ফয়জুর রহমান, শিবগঞ্জ সোনাপাড়ার হাফিজ মিছবাহ উদ্দিন চৌধুরীর নির্দেশে একদল লোক গত ২৮ফেব্র“য়ারী সকাল ১১টায় আদালতের রায় অমান্য করে ছয়ফুল আমীনের বসতবাড়ীর গাছপালা কেটে নিচ্ছে।

    এ ব্যপারে কর্মরত শ্রমিকরা জানায় নিষেদাজ্ঞা আছে কি না বিষয়টি আমাদের জানা নেই। তবে মালিকরা আমাদের কাজ করার জণ্য বলেছে তাই আমরা এখানে কাজ করছি। তবে তাদের মালিকের নাম জানতে চাইলে সাইনবোর্ড দেখিয়ে বলে এখানে নাম লিখা রয়েছে।

    এ ব্যপারে জমির বাটেয়ারা মালিক ছয়ফুল আমীন বলেন- আমার পৈতিক সম্পত্তি চাচা সামসুজ্জামান জ্বাল দলিল তেরী পূর্বক শেলটেক টেকনোলজিস লিমিটেড এর কাছে বিক্রয় চুক্তিতে আবদ্ধ হইয়াছেন। বিষয়টি দৈনিক সিলেটের ডাক সিডা-৬৬৫৮ নং আইনগত বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানতে পেরে আমার আইজীবীর মাধ্যমে আইনগত বিজ্ঞপ্তির প্রকাশের প্রেক্ষিতে (সিডা ৬৭৮৭)নং সতর্কীকরণ বিজ্ঞাপ্তী প্রকাশ করি।

    তপশীল বর্ণিত ভূমির বিরুধ নিষ্পত্তি কিংবা বাটেয়ারা দলিল ছাড়া বিক্রয় চুক্তিত্বে আবদ্ধ না হওয়ার জন্য বলা হয়। তার পরেও শেলটেক টেকনোলজিস লিমিটেড জমি ক্রয় করেছে। এর পর আমি মাননীয় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে, সিলেট জৈন্তাপুর বিবিধ মামলা নং ০৪/২০১৫ দাখিল করি।

    মামলা দায়েরের পর হতে উল্লেখিত সামছুজ্জামান গংরা পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করে। আমি বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা হাকিম আদালতে মামলা দায়ের করি।

    আদালত শান্তি-শৃঙ্খলা বজার রাখার লক্ষে ফৌজদারী কার্য্য বিধি ১৪৪ ধারা মোতাবেক সিলেট জেলার, জৈন্তাপুর থানার ফরফরা মৌজার ১০৯ নং জেল স্থিত বিএস দাগ নং ৪২৮, ৪২৮, ৪২৮, ৪২৮, ৪২৮, ৪২৮, ৪২৮ এবং ৪২৬, ৪২৬, ৪২৬, ৪২৬, ৪২৬, ৪২৬, ৪২৬, ৪২৬, ৪২৬, এর অর্ন্তগত মোট ৪.৪৮৫৯ একর জমিতে নিয়েদাজ্ঞা জারী করে। কিন্তু প্রতিপক্ষ গংরা নিষেদাজ্ঞা অনাম্য করে জৈন্তাপুর মডেল থানার এস.আই স্বপ্ন চন্দ্র সরকারের উপস্থিতিতে জায়গা দখল করে এবং আমাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকী ধমকী সহ প্রাণ নাশের ভয়ভীতি প্রর্দশন করছে।

    এ ব্যপারে এস.আই স্বপ্ন চন্দ্র সরকারের সাথে আলাপকালে তিনি জানান- শেলটেক টেকনোলজিস লিমিটেড এর কর্তৃপক্ষ তাদের খরিদকৃত জমিতে প্রাচীর নির্মানের কাজ করছে। এখানে ছয়ফুল আমিন নামে একজন বাঁধা সৃষ্টি করছে খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই। আদালতের নিষেদাজ্ঞা জারী রয়েছে প্রশ্ন করা হলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেনি।

    এ ব্যপারে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জের দায়িত্বে থাকা সিনিয়র এস আই আব্দুল মোতালেবের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন জমি দখল সংক্রান্ত বিষয় আমার কিছু জানা নেই বা আমাকে কেউ জানায়নি।

    এ ব্যপারে শেলটেক টেকনোলজিস লিমিটেড এর মোবাইল(০১৭৩২৯৫২০২৬)ফোনে যোগাযোগ করা হলে অপরপ্রান্তে কেউই রিসিভ করেনি।