ইরাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী মসুল জিহাদীদের দখলে

    1
    226

    আমারসিলেট24ডটকম,১১জুনঃ জিহাদীরা ইরাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী মসুল ও আরো কিছু অঞ্চল দখল করে নেয়ারপর আজ বুধবার ওই এলাকায় দৃঢ় নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে। তারা নগরীর রাস্তায়টহল দিচ্ছে এবং সরকারি কর্মচারীদের কাজে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে।ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড লেভান্ত (আইএসআইএল) যোদ্ধাসহ সুন্নি যোদ্ধারা গতকাল মঙ্গলবার মসুলে ঢুকে পড়ে। এ সময় আতঙ্কিত প্রায় পাঁচ লাখ লোক শহরছেড়ে পালিয়ে যায় বলে এএফপি জানায়।ঘটনাটি ইরাকের শিয়া নেতৃত্বাধীন সরকারের জন্য একটি বড় আঘাত।
    প্রধানমন্ত্রী নূরী আল-মালিকি জিহাদিদের প্রতিরোধে ইচ্ছুক নাগরিকদের অস্ত্র সজ্জিত করার ঘোষণা দেন।অপরদিকে যুক্তরাষ্ট্র সতর্কবাণী উচ্চারণ করে বলেছে, আইএসআইএল গোটা অঞ্চলের জন্য হুমকি সৃষ্টি করেছে।
    আজ বুধবার বন্দুকধারীদের মসুলে সরকারি ভবন ও ব্যাংক পাহারা দিতে দেখা যায়।এদের অনেকের পরনে ছিল সামরিক পোশাক। তারা লাউড স্পিকারে সরকারি কর্মচারীদেরকর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানায়।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এখনো বেশ কিছু পরিবার নগরী ছেড়ে পালাচ্ছে।
    জিহাদিরা মঙ্গলবার পুরো মসুল ও নিনেভেহ প্রদেশ দখল করে নেয়। এছাড়া তারাপূর্বে কিরকুক ও দক্ষিণে সালাহেদ্দিন প্রদেশেরও কিছু এলাকা দখল করেনেয়।

    উল্লেখ্য,ইরাকের মসুল নগরীতে জিহাদক্ষ্য,আজ বুধবার তুর্কি কনস্যুলেট দখল এবং মিশন প্রধানসহ ২৫ স্টাফকে অপহরণ করেছে।পুলিশের একজন কর্নেল ইসলামী স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড লেভান্তের প্রতি ইঙ্গিতকরে বলেন, আইএসআইএল তুর্কি কনসাল এবং তার ২৪ প্রহরী ও সহকারীকে অপহরণকরেছে।সুত্রঃএএফপি