ইলেকশন মনিটরিং ফোরাম’র নির্বাচন পর্যবেক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

0
19

দেশী-বিদেশী পর্যবেক্ষকদের নজর কেড়েছে এবারের নির্বাচন, ভোটারদের উপস্থিতির উপর নির্ভর করছে গ্রহণযোগ্যতা-আলোচক বৃন্দ

আমার সিলেট ডেস্ক: নির্বাচনের সার্বিক বিষয়ে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষ ভূমিকা পর্যবেক্ষণ করছে দেশ ও বিদেশের পর্যবেক্ষকগণ। দলীয় সরকারের অধীনে প্রভাবমূক্ত ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হতে পারে সেটি প্রমাণ করতে হবে সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে। দেশের মানুষ ৭ ই জানুয়ারী ভোটকেন্দ্রে নির্বিঘ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারলে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন গ্রহণযোগ্যতা পাবে। নির্বাচন বর্জনকারী রাজনৈতিক দলসমূহের কর্মী, সমর্থক ও নির্বাচন বিরোধী প্রচারণার কারণে ৩০ % থেকে ৩৫ % ভোটার ভোটদানে বিরত থাকতে পারে বলে মনে করছে দেশী ও আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকগণ। দেশের বৃহত্তর নির্বাচন পর্যবেক্ষক মোর্চা ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের উদ্যোগে অদ্য ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩ সকালে ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবে স্থানীয় পর্যবেক্ষকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় ফোরামের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলী উপরোক্ত মন্তব্য করেন।
প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বক্তারা আরো বলেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, দেশী বিদেশী পর্যবেক্ষকদের তীক্ষ্ণ নজর কেড়েছে। বহির্বিশ্বে নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতার ক্ষেত্রে বিদেশী পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতি সহায়ক ভূমিকা রাখবে এবং নির্বাচনকে আরো প্রাণবন্ত করবে।
ইএমএফ এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলীর সভাপতিত্বে কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন— সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়া, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান— কাজী রিয়াজুল হক, ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের পরিচালকবৃন্দ যথাক্রমে-সাবেক নির্বাচন কমিশনার মোঃ শাহ্ নেওয়াজ, ডুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাবিবুর রহমান, বুয়েটের উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল জব্বার খাঁন, বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহফুজুল ইসলাম, ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ—উপাচার্য অধ্যাপক ড. আহমেদ আবুল কালাম আজাদ, ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এড. আবুল হাশেম, তানভীরুল ইসলাম, ড. আজাদুল হক ও মোহাম্মদ ইকবাল বাহার।