ইসলাম বিদ্বেষীর হজ্জ পালন !

    0
    212

    আমার সিলেট  24 ডটকম,২১অক্টোবরআল্লাহ যাকে সহজ সরল পথে  চালাতে চান তাকে কেহ বাকা পথে রাখতে পারে না ইসলামের এই চিরন্তন বাণীই হয়তো তার জীবনে কল্যাণ এনে দিতে পারে,যদি সহিহ নিয়তে ইসলাম কবুল করেন।  এক সময়ের ইসলাম বিদ্বেষী ছায়াছবি ফিতনার নির্মাতা আর্নোড ভ্যান দুর্ন কয়েক মাস আগে ইসলাম গ্রহণের পর এবার হজ্জ করলেন। নেদারল্যান্ডের কট্টোর বামপন্থী দল উইল্ডার্স ফ্রিডম পার্টির সাবেক এই সদস্য ফিতনা নামক ইসলাম বিদ্বেষী একটি ছায়াছবি নির্মাণ করে ব্যাপক আলোচিত হয়েছিলেন। এই ছায়াছবিতে বিশ্বনবী (দঃ) ও ইসলাম সম্পর্কে ভুল ধারণা দেয়া হয়েছিল এবং ইসলাম ও কুরআনকে সহিংসতার সঙ্গে জড়ানো হয়েছিল। পরবর্তীতে এ ছায়াছবি নিয়ে মুসলমানরা ব্যাপক প্রতিবাদ করায় দুর্ন ইসলাম ও বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (দঃ) সম্পর্কে পড়াশুনা শুরু করেন এবং ইসলাম ধর্মের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হন। ইসলাম সম্পর্কে ব্যাপক পড়াশুনার পর চলতি বছরের গোড়ার দিকেই এই ধর্ম গ্রহণ করেন তিনি।
    ইসলাম বিদ্বেষী ফিতনা ছায়াছবিতে ভূমিকা রাখার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে তিনি বলেন, এই পাপ মোচনের জন্য আমি পবিত্র স্থানগুলোতে এসেছি। নবীজির রওজার সামনে দাঁড়িয়ে আমি লজ্জা অনুভব করছি। আমি আমার সেই মারাত্মক ভুলের কথা স্মরণ করছি যে ভুল আমি করেছিলাম সেই ইসলাম অবমাননাকর ছায়াছবি নির্মাণ করে। অনুতপ্ত দুর্ন আরো বলেন, আমি আশা করছি, আল্লাহ আমাকে ক্ষমা করবেন ও আমার তওবা কবুল করবেন।
    অনুতপ্ত দুর্ন জানান, বিশ্বনবী (দঃ) এর ব্যক্তিত্ব ও ইসলামের সঠিক চিত্র যথাযথভাবে তুলে ধরার জন্য একটি ছায়াছবিও নির্মাণ করবেন তিনি। স¤প্রতি শেষ হওয়া হজ পালনের সময় তিনি প্রশান্তি অনুভব করেছেন বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, আমি নিজেকে খুজে পেয়েছি এই বিশ্বাসীদের (হাজিদের) হৃদয়ে। আমি আশা করি, তওবার পর অনুতাপে ঝরে পড়া আমার চোখের পানি আমার সব গোনাহ ধুয়ে ফেলবে, দুর্ন যখন একথা বলছিলেন তখন তার চোখ বেয়ে ঝরে পড়ছিল অশ্রু।
    দুর্ন বলেন, হজ্জে আসার পর জীবনের শ্রেষ্ঠ দিনগুলো কাটিয়েছি। বিশ্বনবী (দঃ) এর পবিত্র মাজার অধ্যুষিত মদীনা নগরীতে আরো বেশি সময় থাকার আশা ব্যক্ত করে দুর্ন বলেছেন, হজ শেষে এই পবিত্র শহরে ফিরে যাওয়ার দৃঢ় সংকল্প রয়েছে তার।সুত্র ইন্টারনেট