এরশাদের কাছে পদত্যাগপত্র জাপার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের

    0
    219

    আমারসিলেট24ডটকম,০ডিসেম্বরঃ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন পাঁচ মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী।আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার। এরশাদের কাছে যারা পদত্যাগপত্র দিয়েছেন তারা হলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী রওশন এরশাদ, বাণিজ্যমন্ত্রী জিএম কাদের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী এবিএম রুহুল আমীন হাওলাদার, পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু এবং প্রেসিডিয়াম সদস্য মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম।

    সম্মেলনে রুহুল আমীন হাওলাদার বলেন, আমরা মনে করেছিলাম, বিএনপিসহ সকল   দল নির্বাচনে অংশ নেবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বিএনপিসহ বেশিরভাগ রাজনৈতিক দল নির্বাচনে না আসায় বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ এবং দলীয় সংসদদের নিয়ে এরশাদ দীর্ঘ বৈঠক করেন। বৈঠকে মন্ত্রী পরিষদ থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

    জানা যায়, সিঙ্গাপুর থেকে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেই রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এডভোকেটের সঙ্গে দেখা করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ পদত্যাগ পত্রগুলো জমা দেবেন।

    রুহুল আমীন হাওলাদার আরো জানান, বাকি দু’জন পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ও প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুকে টেলিফোন করে পদত্যাগপত্র দিতে বলা হয়েছে। শিগগিরই তারাও পদত্যাগপত্র জমা দিবেন।

    এর আগে আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পতাকাবিহীন গাড়িতে করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যান জাতীয় পার্টির নেতা ও নির্বাচনকালীন সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রওশন এরশাদ, বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রুহুল আমিন হাওলাদার এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু। সেখানে তারা দুপুর দেড়টা পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন।

    প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বেরিয়ে জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার জানিয়েছেন, আমরা এখনো পদত্যাগপত্র জমা দেইনি। আমরা প্রধানমন্ত্রীকে দলের অবস্থান জানিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী একটি প্রস্তাব দিয়েছেন। আমরা এ প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করব। এরপর চেয়ারম্যান যে সিদ্ধান্ত দেন আমরা তাই কার্যকর করব।

    এরপর মন্ত্রীরা প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে বেরিয়ে এরশাদের প্রেসিডেন্ট পার্কে চলে যান। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাদের আলোচনা সম্পর্কে জাপা প্রেসিডেন্টকে অবহিত করেন।

    মঙ্গলবার পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ আকস্মিকভাবে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। এর পরদিন বুধবার তিনি তার দলের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার এবং মন্ত্রীদের পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন।

    পরে আজ এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, নির্বাচনকালীন মন্ত্রীসভা থেকে জাতীয় পার্টির মন্ত্রীরা পদত্যাগ না করলে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। তিনি বলেন, যদি কেউ পদত্যাগ না করেন তাহলে তাকে জাতীয় পার্টি থেকে বহিষ্কার করা হবে এমনটা জানিয়েছেন পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ।