ঐশীকে মহিলা কারাগারে রাখা হবে

    0
    240

    আমার সিলেট ডেস্ক,৩১ আগস্ট : চাঞ্চল্যকর পুলিশ দম্পতি খুনের ঘটনায় বন্দি নিহত দম্পতির মেয়ে ঐশীকে যে কোনো মুহুর্তে কাশিমপুর মহিলা কারাগারে স্থানান্তর করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন গাজীপুর জেলা সমাজসেবা অধিদফতরের উপ-পরিচালক লুৎফুন্নাহার।এর আগে পুলিশ দম্পতি খুনের পর নিহত দম্পতির মেয়ে ঐশী আত্মসমর্পণ করার পর রিমান্ড শেষে গাজীপুরের কোনাবাড়ি কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্র থেকে তাকে রাখা হয়।

    শুক্রবার সকালে গাজীপুর সমাজসেবা অধিদফতরের উপ-পরিচালক লুৎফুন্নাহার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।তিনি বলেন, আদালতের আদেশ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঐশীকে কারাগারে নিয়ে স্থানান্তর করা হবে।কাশিমপুর মহিলা কারাগারের একটি দায়িত্বশীল সূত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে  জানান, ঐশীকে কোনাবাড়ি কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্র থেকে এখানে আনা হবে বলে শুনছি। তবে কখন আনা হবে তা বলতে পারছি না।

    এদিকে বৃহস্পতিবার আদালতের আদেশ হয়েছে ঐশীকে কারাগারে নেওয়া হবে। এমন খবর মিডিয়ায় প্রচার করা হলে কোনাবাড়ি কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্রে যোগাযোগ করা হলে কোনো কর্মকর্তা ফোন ধরেননি।বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ঐশীকে কখন স্থানান্তর করা হবে এ ধরনের সংবাদ জানতে সাংবাদিকরা কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্রের প্রধান ফটকে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করলেও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি তারা।

    প্রসঙ্গত, ১৪ আগস্ট রাতে রাজধানী ঢাকার চামেলীবাগে ভাড়া বাসায় পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না রহমান নৃশংসভাবে খুন হন। ১৬ আগস্ট সন্ধ্যায় তাদের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ১৭ আগস্ট খুন হওয়া দম্পতির এক মাত্র মেয়ে ঐশী পল্টন থানায় আত্মসমর্পণ করে। পুলিশ আদালতের নির্দেশে ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। শনিবার ঐশী বাবা-মা হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী এবং নিজের অংশগ্রহণে হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার করার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

    পুলিশ দম্পতি মাহফুজুর রহমান ও স্বপ্না রহমান হত্যা মামলার প্রধান আসামি তাদের একমাত্র মেয়ে ঐশী রহমান ও গৃহকর্মী সুমি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ার পর ২৪ আগস্ট রাত ৯টায় আদালতের নির্দেশে গাজীপুরের কোনাবাড়ি কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্রে আনা হয়।