কমলগঞ্জে চোরাই পথে আসা ভারতীয় সুপারীতে বাজার সয়লাব

    0
    261

    আমারসিলেট 24ডটকম ,সেপ্টেম্বর ,শাব্বির এলাহী : মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের হাট বাজারে সুপারীর দাম সর্বসাধারনের নাগালের বাইরে চলে গেছে। অত্যধিক দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় চোরাই পথে আসা ভারতীয় সুপারীতে সয়লাব কমলগঞ্জের শমশেরনগরসহ বিভিন্ন বাজার। ফলে বাংলাদেশী বৈধ সুপারী ব্যবসায়ীরা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

    জানা যায়, গত রমজান মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে ক্রমান্বয়ে সুপারীর দাম বাড়তে শুরু করে। বর্তমানে সুপারীর আমদানী বন্ধ হয়ে যাওয়ায় খুচরা বাজারে সাড়ে ৬শ’ থেকে ৭শ’ টাকা দরে প্রতি কেজি সুপারী বিক্রি হচ্ছে। এই সুযোগে কিছু সংখ্যক চোরাই ব্যবসায়ীরা শরীফপুর সীমান্ত এলাকার হরিপুর, লক্ষ্মিপুর, লালারচক, লাটিউড়া এলাকা দিয়ে ভারতীয় সুপারী এনে বাংলাদেশের কুলাউড়া উপজেলার আমতলা, বটতলা, নছিরগঞ্জ এবং কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর, পতনউষারসহ বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করছে।

    রাতের আঁধারে ভারতীয় সীমান্তে কাঁটা তারের বেড়ার উপরে মই দিয়ে ভারতীয় সুপারী, নাসির বিড়ি, ফেনসিডিলসহ বিভিন্ন অবৈধ মালামাল প্রতিনিয়ত বাংলাদেশে প্রবেশ করছে। বাংলাদেশের বাজারে সাড়ে ৩শ’ থেকে ৪শ’ টাকা দরে ভারতীয় সুপারী বিক্রি করা হচ্ছে বলে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের লোকসান হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শমশেরনগর মাছ বাজার সংলগ্ন সায়মন ট্রেডার্সের পাইকারী সুপারী বিক্রেতা মো. ইলিয়াছ আলী বলেন, চোরাই পথে ভারতীয় সুপারী আসায় বেচা কেনায় মন্দাভাব দেখা দিয়েছে।