কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে ৩৮টি শিল্প স্থাপন প্রক্রিয়াধীন

    0
    228

    আমারসিলেট24ডটকম, ১৪জুনঃ বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৪-এ প্রকাশিত বেসরকারিকরণ কার্যক্রমের উপর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়যে,বেসরকারি শিল্প খাতকে উৎসাহিত এবং নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে ৩৮টিরাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানের উদ্বৃত্ত ৩২২ একর জমি লিজ বরাদ্দের মাধ্যমে নতুনশিল্প স্থাপনের একটি প্রস্তাব প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

    এতে আরও বলা হয়, ১৯৯৩ সালে প্রতিষ্ঠিত বেসরকারিকরণ বোর্ড বর্তমানেপ্রাইভেটাইজেশন কমিশন গঠনের পর থেকে২০১৪ সাল পর্যন্ত মোট ৭৭টি শল্পপ্রতিষ্ঠান বেসরকারিকরণ করা হয়েছে। এরমধ্যে ৫৬টি প্রতিষ্ঠান সরাসরি বিক্রিরমাধ্যমে এবং ২১টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার বিক্রির মাধ্যমে বেসরকারিকরণ করা হয়।
    বর্তমানে আরো ১৯টি রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বেসরকারিকরণের প্রক্রিয়া চলছে বলে প্রতিবেদনে তথ্য প্রকাশ করা হয়।
    এতে এমনও বলা হয়, বেসরকারি ৫৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৪৪টি প্রতিষ্ঠান লাভজনকঅবস্থায় চালু রয়েছে। এ সব প্রতিষ্ঠানে ২৯০ শতাংশ জনবল বেড়েছে।
    রাষ্ট্রায়ত্ত ৩৯টি প্রতিষ্ঠানের অব্যবহৃত ১২৮৮ একর জমি লিজ প্রদানেরমাধ্যমে নতুন শিল্প-কারখানা গড়ে তোলার জন্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
    বেসরকারিকরণ কার্যক্রম বাস্তবায়নে ১১ সদস্যের একটি কমিটি এবং ৫ সদস্যেরএকটি সাব-কমিটি ইতোমধ্যে ৩৮টি শিল্প প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে ১৫১৬ দশমিক ৭৪একর জমির একটি তালিকা প্রস্তুত করেছে। চলতি বছরের মার্চ মাসে কয়েকটিপ্রতিষ্ঠানের উদ্বৃত্ত ৩২২ দশমিক ১ একর জমি লিজ প্রদানের মাধ্যমে নতুনশিল্প স্থাপন করার জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
    এই নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দেশে কয়েক লাখ নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে আশা করা হয়।
    গত জানুয়ারি পর্যন্ত দেশের ৮টি ইপিজেডে ৩ লাখ ৮২ হাজার ২৩০ জন বাংলাদেশীনাগরিকের কর্মসংস্থান হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকা, চট্টগ্রাম, মংলা, কুমিল্লা, ঈশ্বরদী, নীলফামারী, আদমজী ও কর্ণফুলী এ ৮টি ইপিজেডে প্রায় ৬৪ শতাংশ নারীশ্রমিক কর্মরত রয়েছেন।
    বর্তমানে ২০১৩-’১৪ অর্থবছরে দেশের ৮টি ইপিজেডে প্রথম সাত মাসে ২১৬ দশমিক ২৬মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ হয়েছে। যা পূর্ববর্তী বছরের চেয়ে ১০ দশমিক ২৬শতাংশ বেশি।বাসস।