কৃষকরা শস্যাদি উৎপাদনে ভোগান্তির শিকার

    0
    235

    আমারসিলেট24ডটকম,২৩নভেম্বর,শাব্বীরএলাহীঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কৃষকরা শস্যাদি উৎপাদনে ভোগান্তির শিকার হয়েছেন। ভেজাল বীজের ছড়াছড়িতে কৃষকরা উদ্বিগ্ন। সরকারি বা বেসরকারি মজুদকৃত শস্যপণ্যের ভেজাল বীজে বাজার সয়লাব হলেও ভেজাল বীজ সরবরাহ বন্ধে কোন পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না।  বাংলাদেশ কৃষি প্রধান দেশ। দেশের আশি ভাগ মানুষ কৃষক। মাটির গুণাগুণ অনুযায়ী সব ধরনের শস্য উৎপাদনে কৃষকরা যথেষ্ট শ্রম দিয়ে থাকে। কিন্তু কৃষি উপকরণের অভাব, ভাল বীজের সরবরাহ ভেজাল বীজ ও সার সরবরাহকারীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট বিভাগের কোন ধরনের খবরদারি না থাকায় বীজ সরবরাহকারী সুবিধাভোগীরা বীজের বাজার অস্থির করে তুলেছে। বীজ সরবরাহ ব্যবস্থা সহজকরণ ছাড়াও কৃষকদের হাতে যথাসময়ে বীজ ও সার সরবরাহে বীঘœতার কারণে কৃষি উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে।  দেশে বর্তমানে বোরো ও মসলা জাতীয় পণ্য সহ শাক-সবজি উৎপাদনের সময়। এ মুহূর্তে কৃষকরা বিশেষ করে রবিশস্য উৎপাদন সহ মসলা জাতীয় পণ্য উৎপাদনের লক্ষ্যে ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহণ করছে। এ মৌসুমে শস্যের মূল্য বৃদ্ধিসহ ভেজাল বীজ বাজারজাত করে বীজ ব্যবসায়ীরা ফায়দা লুটছে। অথচ ভেজাল বীজ রোপণ করে কৃষকরা বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে।শস্য ভান্ডার হিসাবে পরিচিত কমলগঞ্জ উপজেলা। এ উপজেলার মাঝ দিয়ে বয়ে গেছে ধলাই নদী। ধলাই নদীর তীরবর্তী এলাকার কৃষকরা বিভিন্ন শস্য ফলন করে লাভবান হয়ে থাকেন। এ ফলনের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে সরকারি উদ্যোগ সহ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এগিয়ে আসতে হবে। কমলগঞ্জ উপজেলার গ্রামাঞ্চলের নিম্ন-মধ্যবিত্ত কৃষকরা হাট বাজারে বীজ সরবরাহকারীদেরকে ভেজাল বীজ সরবরাহ করে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন।

    কমলগঞ্জ উপজেলার সফল কৃষক মোবাশ্বির আলী, পতনঊষারের সুনীল দেবনাথ, পরিমল দেবনাথ, মুন্সীবাজারের মানিক মিয়া সহ অসংখ্য কৃষক বলেন বাজার থেকে বিভিন্ন জাতের বীজ রোপণ করা হলে সঠিক সময়ে উঠে না। বীজের মধ্যে ভেজাল থাকার কারণে নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হতে হচ্ছে। সচেতনমহল মনে করেন মতে দেশে কৃষি পণ্যের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে এবং কৃষক সমাজকে আরো উৎসাহী করতে কৃষি ক্ষেত্রে সকল প্রকার অনিয়ম-দুর্নীতি কঠোর হস্তে দমন করতে হবে। এখন বোরো বীজের চারা বপনের সময়। এ মুহূর্তে বোরো ফসল ভাল উৎপাদন বাড়াতে ভাল বীজের সরবরাহে যেন কোন অনিয়ম না হয়। ভাল বীজ সরবরাহ মানে ভাল ফলন। তাই ভাল বীজ সরবরাহে কৃষি বিভাগ সহ সচেতন কৃষকরা এগিয়ে আসতে হবে।

    এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: সামছুদ্দিন জানান, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।