কৃষক শরীফের কুল বাগানে সাফল্যের হাতছানি

0
294

জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধি; বল সুন্দরী জাতের কুল (বড়ই) চাষ করে সাফল্যের হাতছানি দেখছেন জৈন্তাপুরের কৃষক শরিফ আহমদ। জৈন্তাপুর উপজেলার ভিত্রিখেল (ববরবন্দ) গ্রামে প্রায় ৩ একর ৩৩ শতাংশ জমিতে উন্নত জাতের বল সুন্দরী জাতের বাগান করেছেন তিনি।

শরীফের সাথে কথা বলে জানা যায়, উপজেলা কৃষি অফিস জৈন্তাপুরের পরামর্শ ও পরিকল্পনায় তিনি ব্যবসার আন্যান্য কৃষির পাশাপাশি ৩ একর ৩৩ শতাংশ জমিতে কুল চাষ করেন। বর্তমানে তাঁর বাগানে রয়েছে ১৫শত কুল গাছ।

কুল চাষ শুরু করার ৮ মাসের মধ্যে আশাতীত ফলন এসেছে বাগানে। চলতি বছর বাগান হতে আত্মীয় স্বজন সহ ৩০-৪০ হাজার টাকার কুল বিক্রি করছেন। চলতি বৎসরের বন্যা ও ঘুর্ণীঝড় সিতরায়ের কারনে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে ৷ তবে তিনি আশাবাদী পরিবেশ পরিস্থিতি টিক থাকলে আগামী বৎসর তার বাগান হতে ৮ হতে ১০লক্ষ টাকার ফলন পাবেন৷

বল সুন্দরী জাতের কুল খেতে মিষ্টি ও সুস্বাদু, বাজারেও এর চাহিদাও ব্যাপক। বাগানেই ১শত টাকা কেজি ধরে কুল বিক্রিয় করেছেন বাজারে যেতে হয়নি ৷

জৈন্তাপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামীমা বেগম বলেন, উপজেলা কৃষি অফিসের মাথ্যমে ও ফিল্ড সুপারভাইজারের সুপরামর্শে কৃষক শরিফ আহমদ কুল বাগানটি করেছেন। বাগানটি কয়েকবার পরিদর্শন করে কৃষক শরিফকে পরামর্শ ও উৎসাহ দিয়েছেন। প্রাকৃতিক দূর্যোগ এবং চারা নতুন থাকার পরও তিনি ভাল ফলন পেয়েছেন৷ আগামী বৎসর তিনি ভাল ফলন পাবেন ৷ কৃষি কর্মকর্তা আরও বলেন, যাদের অনাবাদি জমি রয়েছে এবং এরকম ফসল ফলাতে আগ্রহী তারা আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে তাদের সার কিটনাশক ও পরামর্শ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে ৷