কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতিঃপ্রশাসন নিরব

    0
    254

    আমারসিলেট24ডটকম,২০অক্টোবরঃ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতিতে মানুষ চরম উদ্বেগ উৎকন্ঠার মধ্য দিয়ে দিনাতিপাত করছে। চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, রাহাজানী, জবরদখল, লুটপাট যেন হচ্ছে নিত্যদিনের ব্যাপার। এ অবস্থায় মানুষ চরম অসহায়ত্ত্বে সাথে উপলদ্ধি করছে যেন এই উপজেলার কোন অভিভাবক বা কান্ডারি নাই। প্রশাসনের সহায়তায় চলছে সিলেটের প্রাচীন অতিহ্য পাথর কোয়ারী, বাংকারে অবাধে লুটপাঠ ও ধংস হচ্ছে পর্যটকের আকর্ষণীয় স্থান। এমনকি উপজেলা যতবেশি চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, রাহাজানী, জবরদখল, লুটপাট হয় তত বেশি আইনশৃঙ্খলাবাহীর অবনিত হয়। কিন্তু প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছে। এলাকার নীরহ মানুষ বর্তমানে আতংকের মাঝে রয়েছে।

    প্রসঙ্গত গত ১৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় স্কয়ার কঞ্জুমারের পূণ্য ডেলিভারী করে আসার সময় পাড়–য়া ব্রীজের মাঝে কোম্পানীর কর্মকর্তাকে একদল মুখুশদারী ডাকাত তাদেরকে আক্রমন করে তাদের কাছ থেকে এক লক্ষ ষোল হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় শাহজালাল এন্টারপ্রাইজ ফিজা পরিবেশক দয়ার বাজার মাল ডেলিভারী করে আসার পথে কলাবাড়ী ব্রীজে একদল ডাকাত আটক করে কোম্পানীর এজেন্টের কাছ থেকে ৩৬ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। একই রাতে রাত ৮টায় ইউনিলিভার কোম্পানী মাল ডেলিভারী দিয়ে আসার পথে তাদের কাছ থেকে ধলাই ব্রীজে একদল ডাকাত আক্রমণ করে ৩৭ হাজার টাকা নিয়ে যায়। ২৫ সেপ্টেম্বর পাড়–য়া নোয়াগাঁও রাস্তার মাঝ খানে একদল ডাকাত আক্রমন করে স্কয়ার টয়েলেটিজ এর পণ্য ডেলিভারী করে আসার পথে ডাকাতদল তাদের কাছথেকে ৪৭ হাজার টাকা নিয়ে যায়। ১লা অক্টোবর টুকেরগাঁও আবু নছরের বাড়ীতে একদল ডাকাত হানা দিয়ে রাতের বেলায় নিয়ে যায় নগদ ৫২ হাজার টাকা। পবিত্র ঈদের দিন রাতে টুকের বাজার প্রাণ কোম্পানী ডিলার শিপের স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল হালিম মোলার ঘরে আক্রমণ করে নিয়ে যায় নগদ ২৫ হাজার টাকা ও আরও ৫০ হাজার টাকার মালামাল। ৩ আগষ্ট নৌকা যোগে দয়ার বাজারে আজির উদ্দিনের বাড়ীতে হানা দিয়ে একদল ডাকাত নগদ ১৭ লক্ষ টাকা এবং ১২ ভরি স্বর্ণ লংকার লুটে নিয়ে যায়।

    একই রাতে একিই গ্রামের আজির উদ্দিনের বায়রা ভাই জামাল উদ্দিনের বাড়ীতে হামলা করে নগদ ১১ লক্ষ টাকা এবং পার্শ্ববর্তী আরেকটি টেলিকমের দোকানে আক্রমন করে নগদ ২ লক্ষ টাকা ও ২০ থেকে ২৫টি মোবাইল সেট নিয়ে যায়। এমনকি বিভিন্ন সময় জাতীয় ও দৈনিক পত্রিকায় আমরা দেখতে পাই বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানী, বিকাশ, ব্যাংক থেকে টাকা নিয়ে আসা যাওয়ার পথে ডাকাতদল বিভিন্ন সড়কের নিরব পয়েন্টে দাড়িয়ে থেকে তাদের কে আক্রমন করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে যায়। যার দরুন বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানী, বিকাশ ও ব্যবসায়ীরা সিলেট শহর থেকে কোম্পানীগঞ্জে গিয়ে ব্যবসা বাণিজ্য করতে নিরাপত্তাহিনতা ভোগে এবং ব্যবসা করতে নারাজ। এমনকি গ্রামগঞ্জে ডকাতদলের কারনে দল বেধে গ্রামের চতুর দিকে পাহাড়া দিতে হয় গ্রামের অসংখ্যা মানুষকে।

    এ অবস্থার উদ্বেগ প্রকাশ করে সিলেট সদর কোম্পানীগঞ্জ উন্নয়ন ফোরামের কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বলেন, রাতের বেলায় টহল পুলিশ সঠিক ভাবে দায়ীত্ব পালন না করায় ও রাস্তা ঘাট খারাপ থাকায় ডাকাতরা সুযোগ পেয়ে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। অবিলম্বে রাস্তা মেরামত করলে আর এ ধরনের পরিস্থিতি থাকবে না। এমনকি কয়েকদিন পূর্বে যাত্রীবেশে ডাকাতদল ড্রাইভারকে পানিতে ফেলে মেরে সিএনজি ছিনতাই করে নিয়ে যায়। ইহাই প্রমান করে আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটেছে কোম্পানীগঞ্জে।