কোয়ারেন্টাইনে নারী ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের এএসআই বহিষ্কার

0
903
কোয়ারেন্টাইনে নারী ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের এএসআই বহিষ্কার
কোয়ারেন্টাইনে নারী ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের এএসআই বহিষ্কার

এম ওসমান,বেনাপোলঃ মহামারী করোনার ভারতীয় ভেরিয়েন্ট বাংলাদেশে ছড়িয়ে পরবে এই শঙ্কায় ভারত থেকে আসা সবাইকে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দেন বাংলাদেশ সরকার। এরই প্রেক্ষাপটে ভারত থেকে ফিরে খুলনার একটি আইসোলেশন কেন্দ্রে কোয়ারেন্টাইনে থাকা এক তরুণীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের এএসআই মোখলেছুর রহমান নামে পুলিশের একজন সহকারী সাব ইন্সপেক্টরকে গ্রেপ্তারের পর সাময়িক বরখাস্ত করেছে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)।
সোমবার (১৭মে) দুপুরে তাকে গ্রেপ্তারের পর ওই দিন বিকালে বরখাস্ত করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন কেএমপির ডিসি (দক্ষিণ) আনোয়ার হোসেন।
পুলিশের সুত্রে জানা যায়, গত ১৩ মে যশোরের বেনাপোল হয়ে বাংলাদেশে ফেরেন ভারতে আটকেপড়া ওই তরুণী। ফেরার পর সেদিনই খুলনা শহরের একটি আইসোলেশন কেন্দ্রে তাকে সরকারের স্বাস্থ্য বিধি আইন মোতাবেক বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। সেখানে প্রেমের ফাঁদ পেতে পুলিশ কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান তাকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ করেন ওই তরুণী।

এই অভিযোগে ধর্ষিত তরুণী নিজেই বাদী হয়ে সোমবার ১৭ মে খুলনা সদর থানায় মামলা করেন। পরে অভিযুক্ত এএসআইকে গ্রেপ্তার করে খুলনা সদর থানা পুলিশ। এই ঘটনায় তাকে পুলিশ বিভাগ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। অভিযুক্ত মোখলেছুর রহমান খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের (কেএমপি) কোর্ট অতিরিক্ত উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হিসেবে কর্মরত। তিনি খুলনার পিটিআই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে গত ১ মে থেকে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তিনি যশোর সদরের দৌলদিহি এলাকার মৃত মোঃ সেকেন্দার আলীর ছেলে।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ মার্চ এক প্রজ্ঞাপন জারি করে ভারত ফেরত সকল যাত্রীদের জন্য ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশনা দেয় সরকার।