প্রাথমিক থেকেই কম্পিউটার শিক্ষা বাধ্যতামূলক হবে শেখ হাসিনা

    0
    205

    আমারসিলেট24ডটকম,৩০ডিসেম্বরঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিরোধী দলকে বলেছেন আন্দোলন করুন কিন্তু এ আন্দোলনের নামে মানুষ হত্যা বন্ধ করুন। আজ সোমবার প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষার ফল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গণভবনে এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ীর ফলাফল তুলে দেন।
    শেখ হাসিনা বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করবেন, করুন। বাচ্চাদের লেখাপড়া যেন বন্ধ না হয়। বিরোধী দল “পরীক্ষার মর্ম” না বুঝলে কিছু করার নেই বলেও তিনি মন্তব্য করেন। পাবলিক পরীক্ষার সময় হরতাল না দিতে অনুরোধ করেছিলাম। উনি (খালেদা জিয়া) বললেন হরতাল দেবেনই। প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেও প্রাথমিকের ফল ভালো হওয়ায় শিক্ষার্থী, শিক্ষক-কর্মকর্তাদের অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।
    প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিরোধী দলের আন্দোলন যদি আত্মঘাতি হয়, মানুষ হত্যা করাই যদি আন্দোলনের লক্ষ্য হয়- তাহলে তা হবে দুর্ভাগ্যজনক। বিএনপি-জামায়াত আন্দোলন করুক। কিন্তু জনগণের বিরুদ্ধে কেন? জনগণ হত্যা করা তো আন্দোলন হলো না। তিনি অভিযোগ করে বলেন, বিরোধী দল পাঁচশ থেকে দুই হাজার টাকার বিনিময়ে লোক ভাড়া করে তাদের দিয়ে বোমা মেরে মানুষ হত্যা করছে। এসব ভাড়াটে লোক দিয়ে আন্দোলন করে বোমা মেরে মানুষ হত্যা করে যাচ্ছে।
    শেখ হাসিনা বলেন, আমরা শিশুদের জন্য শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছি, তার ফলও পাচ্ছি। মেরে নয়, বাচ্চাদের আদর করে বোঝালে জোর জবরদস্তি করতে হয় না। আওয়ামী লীগের বর্তমান সরকারের সময়েই যে স্কুল-কলেজে শিক্ষার্থীদের শাস্তি নিষিদ্ধ করা হয়েছে- সে কথাও তিনি মনে করিয়ে দেন।
    ৯৮ শতাংশের বেশি শিক্ষার্থীর পাস অসাধ্য সাধন। বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ধরে রাখতে “স্কুল ফিডিং কর্মসূচি” সহ সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথাও তিনি তুলে ধরেন।এবার প্রাথমিক সমাপনীতে ৯৮.৫৮% এবং ইবতেদায়ীতে ৯৫.৮% শতাংশ শিক্ষার্থীর পাস করেছে। জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যাও গতবারের তুলনায় বেড়েছে।সবাই মিলে বাচ্চাদের দিকে নজর দেয়ার কারণেই এতো ভালো ফলাফল বলে মনে করেন শেখ হাসিনা।
    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তার দল আগামীতে ক্ষমতায় এলে প্রাথমিক পর্যায় থেকেই কম্পিউটার শিক্ষা বাধ্যতামূলক করবে।