খালেদা জিয়াকে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটামঃনৌপরিবহণমন্ত্রী

    0
    232

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৬ফেব্রুয়ারী: হরতাল-অবরোধের নামে বোমা মেরে মানুষ হত্যা না করে দেশ থেকে হরতাল-অবরোধের অভিশাপ প্রত্যাহারের জন্য বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছেন নৌ-পরিবহণমন্ত্রী শাজাহান খান। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, অন্যথায় খালেদা জিয়াকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হবে।

    হরতাল-অবরোধ বণ্ধের দাবিতে শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়ে খালেদার কার্যালয় ঘেরাও করতে গিয়ে এ হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

    নৌ-পরিবহণমন্ত্রী শাজাহান খানের নেতৃত্বে  শ্রমিক-কর্মচারী-পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের নেতাকর্মীরা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কার্যালয় ঘেরাওয়ের জন্য মিছিল নিয়ে যান নৌমন্ত্রী। তবে খালেদার কার্যালয়ের সামনে গুলশানের ৮৬ নম্বর রোডের মাথায় পুলিশ ব্যাড়িকেট দিয়ে মিছিলটি আটকে দেয়। সেখানে সমবেত মিছিলকারীদের সমাবেশে বক্তব্য দেন তিনি।

    নৌমন্ত্রী বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে খালেদা জিয়াকে হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহার করতে হবে। তো না করলে এরপর তাকে গ্রেফতারের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান নৌমন্ত্রী।

    নৌমন্ত্রী হুঁশিযার করে দেন, খালেদাকে গ্রেফতার করা না হলে শ্রমিক-জনতাকে নিয়ে তাকে আটক করে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হবে।

    এর আগে সোমবার দুপুর ১২টার কিছুক্ষণ পর নৌমন্ত্রী মিছিল নিয়ে খালেদার কার্যালয় অভিমুখে রওয়ানা হন।  তবে খালেদার কার্যারলয়ের সামনের গুলশানের ৮৬ নম্বর রোডের মাথায় পুলিশ ব্যাড়িকেট দিয়ে মিছিলটি আটকে দেয় পুলিশ। এর আগে সকাল ১০টার পর থেকে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে গুলশান-২ নম্বর এলাকায় জড়ো হতে থাকেন।

    সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা লীগের কর্মীরা খালেদার কার্যালয়ের বাইরে অবস্থান নিয়ে স্লোগান দিচ্ছেন।  এর আগে সকাল ১০টার দিকে মহিলা লীগের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী একই স্থানে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

    ঘেরাও কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের আশাপাশের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। গুলশানের ৮৬ নম্বর রোডের দুই পাশে অতিরিক্ত দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া ও ব্যারিকেড দিয়ে জনসাধারণ-যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে।