গাজায় যুদ্ধ বিরোধী প্রস্তাবে ভেটো না দেওয়ায় ক্ষেপেছে দখলদার নেতানিয়াহু

0
31
গাজায় যুদ্ধ বিরোধী প্রস্তাবে ভেটো না দেওয়ায় ক্ষেপেছে দখলদার নেতানিয়াহু

আমার সিলেট ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ক্ষেপেছে দখলদার ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু, বাতিল করলেন সফর।গাজা উপত্যকায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। সোমবার যুক্তরাষ্ট্র তার আগের অবস্থান পরিবর্তন করে ভেটো না দেওয়ায় সর্বসম্মতিক্রমে প্রস্তাবটি পাস হয়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের এই অবস্থান পরিবর্তনে বেশ ক্ষুদ্ধ ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। এ ঘটনার পর তিনি ওয়াশিংটনে একটি উচ্চ-পর্যায়ের প্রতিনিধি দলের পরিকল্পিত সফর বাতিল করেছেন।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নেতানিয়াহু যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র আগের অবস্থান থেকে পিছু হটে গেছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র জাতিসংঘে তাদের নীতি থেকে সরে গেছে। দুঃখজনকভাবে তারা নতুন প্রস্তাবনাতে ভেটো দেয়নি। যে প্রস্তাবনায় যুদ্ধবিরতির আহ্বান জিম্মি মুক্তির শর্তসাপেক্ষে নয়। এতেই স্পষ্ট হয়, গাজায় যুদ্ধ শুরুর সময় থেকে নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের যে অবস্থান ছিল তা থেকে তারা সরে গেছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এ ঘটনায় হামাস মনে করবে যে, আন্তর্জাতিক চাপের মুখে ইসরায়েল জিম্মিদের মুক্তি ছাড়াই যুদ্ধবিরতি মেনে নেবে। আর যুক্তরাষ্ট্র তাদের নীতি থেকে সরে গেলে এবং ক্ষতিকর প্রস্তাবনায় ভেটো না দিলে যুক্তরাষ্ট্রে ইসরায়েলি প্রতিনিধিদলের সফর বাতিল করবেন, বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু জাতিসংঘ প্রস্তাবনা পাসের আগেই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন। তাই যুক্তরাষ্ট্র তাদের অবস্থান পরিবর্তন করায় প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, উচ্চ-পর্যায়ের প্রতিনিধি দল ইসরায়েলেই থাকবে।’

যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে আগে তোলা তিনটি প্রস্তাবে ভেটো দিলেও গতকাল সোমবার নতুন যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে ভেটো দেওয়া থেকে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন এমন এক সময় এ সিন্ধান্ত নিলো যখন ফিলিস্তিনে বহু বেসামরিক হতাহতের ঘটনা ঘটছে। গাজায় মানবিক সহায়তা পৌঁছাতে পারছে না। সেখানে অনাহারে ইতিমধ্যে বহু মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। এদের মধ্যে শিশুরাও রয়েছে।

গাজায় সম্প্রসারিত মানবিক সহায়তার জন্য মার্কিন প্রস্তাবের পাশাপাশি দক্ষিণ গাজা উপত্যকার রাফাহ শহরে ইসরায়েলের পরিকল্পিত স্থল হামলার বিষয়ে বিকল্পগুলো শুনতে ইসরায়েলি এই প্রতিনিধিদলের ওয়াশিংটন সফর করার কথা ছিল।

গত সপ্তাহে নেতানিয়াহু এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মধ্যে ফোনালাপের পর এই সফরের ঘোষণা দেওয়া হয়।

আনাদোলু বলছে, জাতিসংঘের এই রেজোলিউশনে ‘পবিত্র রমজান মাসের জন্য সকল পক্ষকে অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানানো হয়েছে। যা পরে একটি স্থায়ী টেকসই যুদ্ধবিরতির দিকে পরিচালিত হবে।’

এই প্রস্তাবে ‘সমস্ত বন্দির অবিলম্বে এবং নিঃশর্ত মুক্তির পাশাপাশি তাদের চিকিৎসা এবং অন্যান্য মানবিক চাহিদা পূরণের জন্য মানবিক সহায়তার প্রবেশ নিশ্চিত করার’ দাবিও করা হয়েছে।

এদিকে জাতিসংঘে ভোটের পর প্রতিনিধিদলের সফর বাতিলে ইসরায়েলের এই সিদ্ধান্তে যুক্তরাষ্ট্র ‘খুবই হতাশ’ বলে জানিয়েছেন মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের স্ট্র্যাটেজিক কমিউনিকেশনের কো-অর্ডিনেটর জন কিরবি।