চুনারুঘাটে ইজারাদারের মাছ লুটঃজালসহ আটক-১

    0
    208

    আমারসিলেট24ডটকম,৩১ডিসেম্বর,এস,এম,সুলতান ও ফারুক মিয়াঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় এক মৎস ব্যবসায়ী ও মৎস খামার ইজারাদারের ৬০ মন মাছ লুট করার চেষ্টা করে একদল সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ। ঘটনাস্থল থেকে মাছ ও জাল সমেত একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

    উপজেলার সদর ইউনিয়নের শিরিকান্দি গ্রামের মৃত আঃ করিমের পুত্র আঃ হক মাস্টারের বসতবাড়ী সংলগ্ন পুকুর পাঁচ বছরের জন্য তিন লক্ষ টাকায় ভাড়া নেন। উপজেলার উবাহাটা ইউনিয়নে মোঃ রমিজ আলীর পুত্র মোঃ আরজু মিয়া।

    উক্ত পুকুরে এক বছর ধরে চাষ করা মাছ বিক্রি করার জন্য গতকাল ভোরে ৬০ মন মাছ তুলেন। মাছ তোলার পর সকাল ৭টার দিকে একদল সন্ত্রাসী জোরপূর্বক মাছগুলো লুট করে গাড়ীতে তুলে নেয়। এসময় সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র সহ লুট পাটের সময় ইজারাদার আরজু মিয়া(৪৫) কে বেধড়ক মারপিট করে।

    এলাকাবাসী আরজু মিয়াকে উদ্ধার করে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করেন। অন্যদিকে, আরজু মিয়া বাদী হয়ে হাসারগাঁও গ্রামের ছইব উল¬াহর পুত্র জালাল মিয়া(২৫) ও বিলাল মিয়া(৩০) শিরিকান্দি গ্রামের মৃত রহিম উল¬াহর পুত্র সুমন মিয়া(২৫) মৃত মতিউর রহমানের পুত্র দুলাল মিয়া(৩৪), মৃত আঃ রহিমের ছেলে ইমান আলী(৪৫), বিলাল মিয়া(৪১) ও শাহজাহান মিয়া (৩০), মৃত আঃ কাইয়ূমের পুত্র নরুল হক(৪০), মৃত মতিউর রহমানের ছেলে এখলাছ মিয়া ও মৃত রইচ উল¬াহর পুত্র সানু মিয়া(৪৫) ও হাসারগাঁও গ্রামের ছইদ উল¬াহর পুত্র আরজু মিয়া(৪২) ও তুলাই মিয়া(৪৫) সহ ১৪জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে চুনারুঘাট থানার এস আই আবু আব্দুল¬াহ জাহিদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ লুন্ঠনকৃত মাছ ও জালসহ একজনকে আটক করে। উলে¬খ্য যে, ৬০ মন মাছের বাজারমূল্য প্রায় ৩ লক্ষ টাকা।

    এলাকাসূত্রে জানা যায়,উক্ত আসামীদের সাথে পুকুরের মালিক আঃ হক মাস্টারের পূর্ব বিরোধের জের ধরে পুকুরের লীজ গ্রহীতা। মৎস ব্যবসায়ী আরজু মিয়াকে বিভিন্ন ভাবে নাজেহাল করার চেষ্টায় একাধিক মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

    আরো জানা যায় উক্ত আসামীদের অনেকের বিরুদ্ধে চুরি ডাকাতি সহ অসংখ্য মামলা রয়েছে। একই ঘটনার পূনরাবৃত্তিতে বাদী আরজু মিয়া নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন বলে জানান।