চুনারুঘাট দূর্গাপুর বাজার সড়কে ভয়ংকর মরন ফাঁদ

    0
    230

    আমারসিলেট24ডটকম,২৯নভেম্বর,ফারুক মিয়াচুনারুঘাটে সদর উবাহাটা ইউনিয়নের দূরর্গাপুর বাজার মহাসড়ক হস্ত চুনারুঘাট থেকে গামী শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রীজ যেতে দূরর্গাপুর বাজার হয়ে যেতে হয়। দুরর্গাপুর বাজার মহাসড়কটির বেহাল দশা ও ভয়ংকর মরণফাঁদ সড়কটি দু’পাশ্ববর্তী অধিকাংশ দিক বিভিন্ন স্থানে সড়কটি পশ্চিম দিক থেকে বড় বড় র্গত হয়ে পড়ে থাকে। ও প্রত্যেক গর্তে ময়লা আবর্জনা ও নোংরা আরদের মাছের ধোয়া পানি বেসে র্গত গুলি সবসময়ই নোংরা পানি জমে থাকে।দূরর্গাপুর বাজার জুড়ে দূরর্গন্ত আবজনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। দিন দিন দূরর্গাপুর বাজারে প্রায় সময়ই দৈনিক জর্গরা জাটি লেগে থাকে। যানজট ও সড়কের যাত্রীদের জন্য ভয়ানক দুর্ভোগের অন্যতম একটি কারণ। এতে মিলিয়ে চুনারুঘাট গামী যাত্রীরা নতুন ব্রীজ শায়েস্তাগঞ্জ যেতে হয়ে যেতে। এসময় যান চলাচলদের ও যাত্রীদের দুরর্ভোগ ফলে এ সড়কে চলাচলের সংখ্যা বেড়ে যাওয়া প্রায় সময়ই অট্রোরিক্সা ট্রাক ও টেমপো গাড়ীর সাথেক যাত্রীবাহী বাস সহ ট্রাকের সংঘস হয়ে থাকে।

    এতে সাধারণ যাত্রীদেরকে জীবন হানি হয়ে করতে হয়েছে। নীরিহ যাত্রীর মাঝে একনো ঘটে র্দূঘটনা এ সড়কের ট্রাফিক আইন যাহা বুঝি এর অধিকাংশ অনুপস্থিত দূরর্গাপুর বাজার বাসীর সুত্রে জানাযায়, যততত্র নানারকম যানবাহান ষ্ট্যোন্ড করে , মালামল লুট আনলুট করা ওভার লুড ভহন করলে নিত্যদিনের ঘটনা। ষ্ট্যোন্ড বানিয়ে সহজ দুর্ভেদ্য রাখ যেন ট্রাফিক আইনের আওতায়ই পড়েনা।

    বুঝাই ও খালি ট্রাক দাঁড় করিয়ে স্বাভিবিক চলাচল ব্যাহত করা হচ্ছে। র্দূঘটনার একটি কারণ সন্ধার পর থেকে সাড়া রাত ব্যাপি এখানে ভারী ট্রাকের সি এন জির এর ভীরে ভয়ংকর রূপ ধারণ করে। এসব পতিকোল অবস্থা সামনে নিয়ে যানমালের ঝুকি নিয়ে দূরর্গাপুর বাজার সড়কের যান চালক যাত্রী সাধারণের জীবন বিপন্নের মধ্যে দিয়ে অতিবাহিত হচ্ছে।

    এসব সমস্যা যারা নিয়ন্ত্রন করবেন তা তাদের মাথা নেই। যে কারণে হতভাগ্য যানচলক যানমালিদের সাধারণের জীবনহানি, পুঙ্গুত্ববরণ এখন ভগ্যের লিখন হয়ে দাড়িয়েছে। সড়ক ও জনপথ এবং ট্রাফিক কর্তৃপক্ষ অসহায় যানচালক মালিক ও যাত্রীর সাধারণের ভোগান্তি নিরসনে উদ্যোগী হবেন এ প্রত্যাশা ভূক্তভোগীদের।

    এনিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান সড়কটির নজরে গর্ত গুলি পড়লেও কিছু জানেনা বলে জানান। এবং দূরর্গাপুর বাজারের মাছের আরত গুলির ধোয়ার আবর্জনা পচা ড্রেনের দূরর্গন্ত বাজার চতুর দিকে ছড়িয়ে পড়েছে। পড়াতে সাধারণ মানুষ বাজারের চলচল করলে নাকে রুমাল দিয়ে টিপে ধরতে হয়। দুরর্গন্তের আবর্জনা কারনে ও কিছু কিছু বুমি করতে করতে বাজারের বাহিরে সরে যেতে হয়। এ ব্যাপারে উর্ধতন কর্তৃপক্ষ সুদিষ্টি দেখার জন্য বাজার বাসী কমিটির পক্ষ থেকে বাজার বাসীরা জোর দাবী জানান।