চুনারুঘাট পারকুল চা বাগানে শ্রমিক ধর্মঘট 

    0
    264

    ফারুক মাহমুদঃ চুনারুঘাটের পারকুল চা বাগান ও রশিদপুর বন বিটের মধ্যে সীমানা নির্ধারণের দাবিতে বাগান শ্রমিকরা দিনব্যাপী ধর্মঘট পালন করেছে। গতকাল সোমবার সকালে পারকুল চা বাগানের চা শ্রমিকরা কাজে গেলে রশিদপুর বনবিটের জনৈক ভিলেজাররা চা বাগানের জমি দখলের চেষ্টা করলে এর প্রতিবাদে বাগানের শ্রমিকরা জড়ো হয়ে বাগান ব্যবস্থাপকের কার্যালয়ে বিষয়টি জানাতে গিয়ে দেখে বাগান ব্যবস্থাপক আনোয়ার হোসেন আনু ও সহকারী ব্যবস্থাপক সহ বাগানের অধিকাংশ স্টাফ অফিসে নেই।

    এসময় শ্রমিকরা বাগান ব্যবস্থাপকের অনুপস্থিতিতে তার বিরুদ্ধে আরো ক্ষুব্ধ হয়ে বাগানের অফিসের সামনে জড়ো হতে থাকে। খবর পেয়ে বাগান ব্যবস্থাপক আনোয়ার হোসেন আনু দ্রুত বাগানে উপস্থিত হয়ে চা শ্রমিকদেরকে বাগানের সীমানা নির্ধারণের বিষয়ে আশ্বাস দেন। এতে শ্রমিকরা না মানায় এবং কাজে যোগ না দেয়ায় পরে চুনারুঘাট সহকারী কমিশনার (ভূমি) স.ম আজহারুল ইসলাম পারকুল চা বাগানে উপস্থিত হয়ে রানীগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান নূরুল মোনীম চৌধুরী ফারুক, বাগান ব্যবস্থাপক ও বাগান প ায়েতের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বিরোধপূর্ণ সীমানায় গিয়ে পরিদর্শন করেন।

    সেখানে খাল, বিল, ছড়া ও প্রচুর কাঁদা থাকায় ও বর্ষা মৌসুম হওয়ায় সীমানা নির্ধারণ করা সম্ভব নয় বিধায় আগামী অক্টোবর মাসের শেষ দিকে সীমানা নির্ধারণ করে দেয়া হবে বলে জানান এসিল্যান্ড। পরে বিরোধপূর্ণ সীমানাতে লাল নিশান পুঁতে উভয়পক্ষকে সতর্ক করে দেয়া হয়। শ্রমিকরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে যার যার ঘরে ফিরে যায়। তবে তারা ঐ দিন আর কাজে যোগ দেয়নি। এ শ্রমিক ধর্মঘটে অংশ নেয়, পারকুল চা বাগান ও ফাঁড়ি নাছিমাবাদ চা বাগানের প ায়েত কমিটির নেতৃবৃন্দ ও চা শ্রমিকরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন- বাগান প ায়েত কমিটির সভাপতি ও ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রিপন দেব তপন, সাধারণ সম্পাদক ও যুবলীগ নেতা মীরেন ভৌমিক, সাবেক প ায়েত কমিটির সভাপতি প্রদীপ, সাবেক মেম্বার ও সাবেক সভাপতি হরিপদ, সাবেক সভাপতি গিরিদারী চৌহান, বাগান প ায়েত কমিটির নেতা কমল তেলিপাল, সজল তেলিপাল, সুমন যাদব, পল, মিঠু, হরি, নোমান মিয়া, নাছিমাবাদ চা বাগানের রবি বুনার্জী, জজ মাড়াক সহ পারকুল ও ফাঁড়ি নাছিমাবাদ চা বাগানের হাজারো চা শ্রমিক এ ধর্মঘটে অংশ নেয়। শ্রমিকরা বাগানে ধর্মঘট করায় বাগানের অনেক ক্ষতি সাধিত হয়। সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ নিষ্পত্তি না হলে আবারো ধর্মঘটের ডাক দেয়া হবে বলে শ্রমিক নেতারা জানান। তবে ভূমি দখলের চেষ্টা করা হয়নি বলে কালেঙ্গা রেঞ্জ কর্মকর্তা আলাউদ্দিন জানান।

    এ বিষয়ে বাগান ব্যবস্থাপক বলেন, আমরা জন্মষ্টমীর ৩ দিনের ছুটি শেষে সকালে বাগানে উপস্থিত হয়ে শ্রমিকদের দাবি বিরোধপূর্ণ সীমানা নির্ধারণের জন্য প্রশাসনের সহযোগিতায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে সাথে নিয়ে বিরোধীয় সীমানা নির্ধারণের চেষ্টা করি।