ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি বাপ্পাদিত্যকে প্রাণনাশের হুমকী

    0
    241

    আমার সিলেট  24 ডটকম,অক্টোবর বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি বাপ্পাদিত্য বসুকে গত পনের দিন ধরে ক্রমাগত তার ফেসবুক আইডি ও ফেসবুক ফ্যান পেজে বিভিন্ন অশ্লিল ও কুরুচীপূর্ণ বক্তব্য লিখে কতিপয় ব্যক্তি প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে যাচ্ছে। এ ঘটনায় ছাত্র মৈত্রী কেন্দ্রীয় কমিটি গভীর উদ্বেগ ও শঙ্কা প্রকাশ করেছে। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আজ বিকাল ৪টায় শাহাবাগ থানায় বাপ্পাদিত্য বসু নিজ নামে একটি সাধারণ ডায়েরি দায়ের করেছে। সাধারণ ডায়েরি নং: শাহাবাগ থানা, তারিখ: ২৪/১০/২০১৩, জিডি নং: ১২৬৩। ডায়েরিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, কাজী সাইফ, মেহেদী হাসান, তাহিরুল ইসলাম, মো: আলাউদ্দিন, মুহাম্মদ ইমরুল আলম ও ওয়াই আর সানি নামের ফেসবুক আইডি থেকে গত পনের দিন যাবৎ উস্কানিমূলক ও অশ্লিল ভাষায় বিভিন্ন দফায় হত্যার হুমকী দেয়া হচ্ছে। তারা বাপ্পাদিত্য বসুর ফেসবুক আইডি, মেসেজ ইনবক্স ও ফ্যান পেজে হত্যার হুমকী দিয়ে বার্তা পাঠায়। এই হুমকীদাতাদের প্রোফাইল ঘেটে দেখা গেছে, এদের কারো কারো পলিটিকাল ভিউ ইসলামী মৌলবাদ, কেউ কেউ বিএনপির রাজনীতি করে।

    বাপ্পাদিত্য বসু বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর পতাকাতলে দীর্ঘ সময় ধরে মৌলবাদ-সাম্প্রদায়িকতা-জঙ্গীসন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ছাত্র আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও জামাত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে গড়ে ওঠা গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম সংগঠকের ভূমিকায়েও বাপ্পাদিত্য বসু ছিলেন অগ্রভাগের সৈনিক। হুমকীদাতাদের বক্তব্যেও বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে যে, মৌলবাদবিরোধী লড়াই থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্যই প্রতিনিয়ত এভাবে হুমকি দেয় হচ্ছে। বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী ও বাপ্পাদিত্য বসু মনে করে এই হুমকীদাতারা জঙ্গীবাদী সন্ত্রাসী সংগঠন জামাত-শিবিরের লোক। এই দুর্বৃত্তরা বাপ্পাদিত্য বসুকে হত্যার জন্য একটি প্লট রচনা করছে, এর আগেও গণজাগরণ মঞ্চের বিভিন্ন সংগঠককে যখন হত্যা করা হয়েছে বা হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করা হয়েছে তাদেরকেও একইভাবে হুমকী দিয়ে সন্ত্রস্ত করেছিল।

    আমরা সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রশাসনের কাছে আহ্বান জানাচ্ছি, দ্রুত হুমকীদাতাদের গ্রেফতার ও বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হোক এবং বাপ্পাদিত্য বসুসহ অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির সংগঠক-কর্মীদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হোক।

    একই সাথে ছাত্র মৈত্রীর নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান, সারাদেশের স্বাধীনতার পক্ষশক্তি ও ছাত্র সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করে এই জঙ্গিবাদী সংগঠন জামাত-শিবিরের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক প্রতিরোধ যুদ্ধে অগ্রসর হতে হবে। শাহাবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরির হুবহু  তুলে ধরা হল

     

    বরাবর,

    ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা

    শাহবাগ থানা

    ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ।

    বিষয় : সাধারণ ডায়েরি।

    জনাব,

    আমি নি¤œস্বাক্ষরকারী বাপ্পাদিত্য বসু, পিতা- মৃত দুলাল চন্দ্র বসু, গ্রাম- জিরাট, পোস্ট- রূপদিয়া, উপজেলা- যশোর সদর, জেলা- যশোর, সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী, কেন্দ্রীয় কমিটি, এই মর্মে আপনাকে অবগত করছি যে, গত কয়েকদিন যাবৎ আমার ফেসবুক আইডি এবং ফেসবুক ফ্যানপেজে বিভিন্ন আইডি থেকে অনবরত হত্যার হুমকি দেয়া হচ্ছে। এসব হুমকিদাতা ফেসবুক ব্যবহারকারীদের লিংক এবং হুমকির ভাষাগুলো এখানে উল্লেখ করছি:

    কাজী সাঈফ নামের একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী (কধুর ঝধরভ, খরহশ : যঃঃঢ়ং://িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/শধুরংধরভ১৫) গত ২১ অক্টোবর ২০১৩ তারিখ দুপুর ১.০০ টায় আমার ফেসবুক আইডির মেসেজ বক্সে লিখে পাঠায়Ñ তোর গতিবিধি কড়া নজরদারিতে আছে, পালাতে পারবি না। রেডি থাক।

    মেহেদী হাসান নামে একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী (গবযবফর ঐধংধহ, খরহশ : যঃঃঢ়ং://িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/সবযবফর.যধংধহ.৩১) গত ১৫ অক্টোবর রাত ৮.৩৭ টায় আমার মেসেজবক্সে লিখে পাঠায়Ñ এই শুয়োরের বাচ্চা, ২৫ তারিখের পর রাস্তায় নাম, দেখবি তোর কি অবস্থা হয়। তোর মার লগী বৈঠার দিন আর আসবে না।

    তাহিরুল ইসলাম নামে আরেকজন ফেসবুক ব্যবহারকারী (ঞধযরৎঁষ ওংষধস, খরহশ : যঃঃঢ়ং://িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/ঃধযরৎঁষ.রংষধস.৫০) ১৬ অক্টোবর আমার ফ্যানপেজের মেসেজ ইনবক্সে লিখে পাঠায়Ñ বিএনপি ক্ষমতায় আসলে তোকে মেরে ফেলা হবে, পালাবি কোথায়? যেখানে পালাবি, সেখানে গিয়ে তোকে মারা হবে। খানকির পোলা, তোর পিছনে লোক লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। পালাবি কোথায়? একই ব্যক্তি গত ১৯ অক্টোবরও আমাকে একই ধরনের ভাষায় হুমকি দেয়।

    মোঃ আলাউদ্দিন নামে আরেকজন ফেসবুক ব্যবহারকারী (গফ অষধঁফফরহ, খরহশ : যঃঃঢ়ং://িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/সফ.ধষধঁফফরহ.৫০৭৪) গত ১৫ অক্টোবর রাত ১০.২৬ টায় আমার ফেসবুকের মেসেজ বক্সে লিখে পাঠায়Ñ খানকির পোলা, ইন্ডিয়ায় পালাবি না কিন্তু। তোর চৌদ্দ গুষ্ঠিরে ….. (লিখে প্রকাশ করার মতো ভাষা নয়)।

    মুহাম্মদ ইমরুল আলম নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী (মুহাম্মদ ইমরুল আলম, খরহশ : যঃঃঢ়ং://িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/বসৎঁষ.ধষধস.৫) অশ্রাব্য ভাষায় হুমকি এবং গালিগালাজ করে।

    ওয়াই আর সানি নামে আরেকজন ফেসবুক ব্যবহারকারী (ণৎ ঝধহর) গত ২৩ অক্টোবর রাত ১১.১৩ টায় আমার ফেসবুকের মেসেজ বক্সে লিখে পাঠায়Ñ এই বাপ্পাদিত্য কুত্তা, তোকে বলছি, এই কুত্তি হাসিনা সরকার পরিবর্তন হবার পর তোকে আমি নিজেই খুন করব দেখিস।

    আমার নিজের ফেসবুক আইডির লিংক : (ইধঢ়ঢ়ধফরঃুধ ইধংঁ , খরহশ : যঃঃঢ়ং://িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/নধংঁ.নধঢ়ঢ়ধফরঃুধ) এবং আমার ফেসবুক ফ্যানপেজের লিংক হলো : যঃঃঢ়ং://িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/ইধঢ়ঢ়ধফরঃুধইধংঁইধঢ়ঢ়ধফরঃুধইধংঁ.

    উপরোক্ত হুমকিদাতাদের ফেসবুক আইডি বিশ্লেষণ করে আমার মনে হয়েছে, এদের অধিকাংশই জামাত-শিবিরের কর্মী এবং এদের মধ্যে কেউ কেউ বিএনপির কর্মীও আছে। জামাত-শিবির মৌলবাদী-সাম্প্রদায়িক-জঙ্গিবাদী অপশক্তির বিরুদ্ধে রাজপথের আন্দোলনে আমার দৃঢ় ভূমিকা, উচ্চকিত কণ্ঠ এবং গণজাগরণ মঞ্চে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবি করে ভূমিকা গ্রহণের কারণেই আমার উপরে এই হুমকি এবং আক্রমণ। আমি আশংকা করছি, এসব তৎপরতা শুধুমাত্র হুমকিদানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে না, আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে একটি পরিকল্পিত প্লট সাজানোর লক্ষ্যেই এসব তৎপরতা চালানো হচ্ছে। এর আগেও বাংলাদেশে মৌলবাদী-সাম্প্রদায়িক-জঙ্গিবাদী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে যারা হত্যা বা আক্রমণের শিকার হয়েছেন, তাদেরকেও একইভাবে হত্যার আগে বারবার হুমকি দেওয়া হয়েছে।

    আমাকেও এর আগে বিভিন্ন সময়ে মোবাইল ফোন ও চিঠি মারফত হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলন শুরু দিকে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকা আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিত প্লট সাজানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন সময়ে মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশন করেছে। এ বিষয়ে আপনার থানায় আমার আরো একটি সাধারণ ডায়েরি নথিভুক্ত করা আছে।

    এ বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে আমি আমার ব্যক্তিগত ও আমার পরিবারের সদস্য এবং আমার সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীসহ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবিতে লড়াইরত সকল নেতা-কর্মীর নিরাপত্তা দাবি করে এবং হুমকিদাতাদের বিরুদ্ধে কার্যকর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার লক্ষ্যে আপনার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি নথিভুক্ত করতে ইচ্ছুক। আশা করি, এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে বাধিত করবেন।

     

    বিনীত

    (বাপ্পাদিত্য বসু)