জমে উঠেছে জুড়ীর ফুলতলা ইউপি নির্বাচনঃনির্ঘুম প্রচারনায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

0
285

এস এম সামছুল ইসলাম,জুড়ী,মৌলভীবাজারঃ মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার ৭নং ফুলতলা ইউনিয়নের নির্বাচন বেশ জমে উঠেছে। তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে দিনরাত প্রার্থীরা ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাইছেন। দিচ্ছেন মিটিংগুলোতে নানারকম প্রতিশ্রুতি। আগামী ২৯ ডিসেম্বর সীমান্তবর্তী ওই ইউনিয়নটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইভিএম এ চলবে ভোট।

ইতোমধ্যেই উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর আইন শৃংঙ্খলা নিয়ন্ত্রণসহ যাবতীয় নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানা গেছে। ২০ ডিসেম্বর সরজমিনে ফুলতলায় গিয়ে প্রার্থীদের গণসংযোগের চিত্র দেখা যায়। প্রার্থীরা তাদের নির্বাচনী ইশতেহারের নানা দিক তুলে ধরেছেন। ভোটারগণও তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ, ইভিএম এ ফলাফল নিয়ে শংঙ্কিত অবস্থায়। এর মাঝেই নির্বাচনে (অংশগ্রহণ না করা দলের প্রার্থীরা) নানারকম গুজব ছড়িয়ে তাদের আতঙ্কিত করে রাখছেন। এবারের নির্বাচনে নৌকা প্রর্তীক নিয়ে লড়ছেন হেভীওয়েট প্রার্থী ফুলতলা ইউনিয়নের সাবেক ৫ বারের নির্বাচিত ও বর্তমান চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুক আহমেদ। তিনি বিগত ৫ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান। ফুলতলা ইউনিয়নে চা শ্রমিকের সংখ্যা বেশি। এজন্য তিনি নৌকা প্রতীকে ভালো অবস্থানে রয়েছেন। তার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মাঠে রয়েছেন দুজন প্রার্থী। এর ১ জন হলেন ফুলতলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ফুলতলা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম ফয়াজ আলীর ২য় পুত্র প্রবাসী আব্দুল আলিম সেলু। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে (ঘোড়া) প্রতীক নিয়ে লড়ছেন তিনি। চেয়ারম্যান প্রার্র্থী সেলিম বিগত ২৩ বৎসর যাবৎ সৌদি আরব প্রবাসী ছিলেন। সেখানে তিনি ভালো বেতনে চাকুরী করতেন। একমাত্র মানুষের ভালোবাসার টানে এবং পিতার হারানো মসনদটি ফিরে পেতেই এবারের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন। এক আলাপ চারিতায় ফুলতলা ইউনিয়নের অনেক দূরদর্শার চিত্র তুলে ধরলেন এই তরুণ প্রার্থী। এছাড়া রাস্তা-ঘাট নির্মাণ, চা শ্রমিকদের গবাদিপশু চুরি ইত্যাদি বন্ধে দৃঢ় পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বললেন তিনি। তিনি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান। বিজয়ী হলে নির্বাচিত ইউপি সদস্যদের নিয়ে ফুলতলা ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়নে রূপান্তর করতে চান। এজন্য তিনি ফুলতলা ইউনিয়নবাসীর সমর্থন প্রত্যাশী। ফুলতলা ইউনিয়নে আরেক প্রার্থী ধনকুবের মোস্তফা মিয়া লড়ছেন আনারস প্রর্তীক নিয়ে। তিনি পরিষদের সাবেক ২ বারের নির্বাচিত সদস্য ছিলেন। তিনি আক্ষেপ করে বলেন ফুলতলা ইউনিয়নের বিচার ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। নির্বাচিত হলে তিনি সব এলাকার মুরব্বিদের নিয়ে সামাজিক বিচার ব্যবস্থা গড়ে তুলবেন।