জাতীয় পার্টির নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা

    0
    230

    আমারসিলেট24ডটকম,০২জানুয়ারীঃ  আসন্ন ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারী ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় পার্টি দলের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে। শান্তির জন্য পরিবর্তন স্লোগানকে সামনে রেখে আজ রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বেলা সোয়া ১১টার দিকে সংবাদ সম্মেলন করে দলের পক্ষে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।
    এদিকে নির্বাচনী ইশতেহার পাঠকালে আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, এইচএম এরশাদের নির্দেশেই জাতীয় পার্টি নির্বাচনে যাচ্ছে। কারণ জাতীয় পার্টি নির্বাচনে বিশ্বাস করে। ’৯১ ও ’৯৬তে পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ জেলে থাকাকালীনও জাপা নির্বাচন করেছে। ২০০১ সালের নির্বাচনে এরশাদকে নির্বাচনে অংশ নিতে দেয়া হয়নি। তবুও জাতীয় পার্টি নির্বাচন করেছে। জাতীয় পার্টি মনে করে কেবল নির্বাচনের মাধ্যমেই ক্ষমতা পরিবর্তন হতে পারে।
    তিনি বলেন, নির্বাচনের ক্ষেত্রে যেসব অসম্পূর্ণতা রয়েছে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে, সাংবিধানিকভাবে এগিয়ে আমরা তা সমাধান করতে পারি। সংঘাত কোনো সমাধান নয়। আমরা বোমা মেরে মানুষ হত্যা করাকে ঘৃণা করি। আমরা যাদের শ্রদ্ধা করি, সম্মান করি, যখন দেখি তারা বোমা মেরে মানুষ হত্যার বিষয়ে সোচ্চার নন তখন খারাপ লাগে।
    আনিসুল ইসলাম মাহমুদ আরো বলেন, আমরা চেয়েছি একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র। আমাদের দেশের ৯০ শতাংশ মানুষ ইসলাম ধর্মাবলম্বী। কিন্তু হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষকেও নিজ নিজ ধর্ম তাদের মতো করে পালন করতে দিতে হবে। ধর্মীয় সহাবস্থান থাকতে হবে। ৯ বছরে সরকার পরিচালনার অভিজ্ঞতার আলোকে জাতীয় পার্টির ইশতেহারে কিছু দফা নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব দফা বাস্তবায়নের জন্য জাতীয় পার্টি জনগণের ম্যান্ডেট চায়। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় এলে দেশের ইসলামী মূল্যবোধ সমুন্নত রাখবে, আল্লাহর ওপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস অবিচল রাখার জন্য সংবিধান সংশোধন করা হবে।
    আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, দেশকে আর্থিকভাবে সুপ্রতিষ্ঠিত করাসহ দেশের সকল স্বীকৃত মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিমদের সম্মানি ও ভাতা দেয়া হবে।