ডিসেম্বরের পহেলা সপ্তাহেই আসন্ন ১০ম সংসদ নির্বাচন

    0
    203

    আমার সিলেট  24 ডটকম,১৬নভেম্বরঃ ডিসেম্বরের পহেলা সপ্তাহেই ঘোষিত হতে পারে আসন্ন ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল। নির্বাচন কমিশন (ইসি) ইতিমধ্যেই এ ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে এ ব্যাপারে ব্যাপক গোপনীয়তার আশ্রয় নেয়া হয়েছে বলে একটি সুত্র থেকে জানা যায়।সূত্র জানায়, নির্বাচন কমিশন মনে করছে আনুষ্ঠানিকভাবে তফসিল ঘোষণার উপযুক্ত রাজনৈতিক পরিবেশ এখনো তৈরি হয়নি। তাই এ ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে।  নিবার্র্চন কমিশনাররা বলছেন, রাজনৈতিক সমঝোতার জন্য তারা খুব বেশি হলে নভেম্বরের শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারবেন। সংবিধান অনুযায়ী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে নির্বাচন করতে হলে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই তফসিল ঘোষণা করতে হবে।
    নির্বাচন কমিশন সচিব মোহাম্মদ সাদিক জানান, নির্বাচনের প্রস্তুতি অবহিত করতে রাষ্ট্রপতির কাছে সময় চেয়ে ইতোমধ্যে আবেদন করেছে ইসি। পাশাপাশি নির্বাচন অনুষ্ঠানের যাবতীয় প্রস্তুতিও এগিয়ে নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন।
    ইসি সচিবালয়ের সুত্র থেকে জানা যায়, তৃতীয় সপ্তাহে (১৭থেকে ২৩ নভেম্বর) সব প্রস্তুতি শেষ করে পরিস্থিতি দেখে শেষ সপ্তাহে (২৪-৩০ নভেম্বর) তফসিল দিলে নির্বাচনের সব আনুষ্ঠানিকতা সারার পর্যাপ্ত সময় পাওয়া যাবে।আর তা নাহলে ১ ডিসেম্বর রবিবার থেকে ১৬ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সময় থাকছে ৪৭ দিন। এরপর ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত গেজেট প্রকাশসহ অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতার জন্য সময় পাওয়া যাবে মাত্র এক সপ্তাহ।প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ ইতোমধ্যে বলেছেন, সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত’ সমঝোতার অপেক্ষায় থাকবেন তারা।এই শেষ মুহূর্ত নভেম্বরের শেষ সপ্তাহ নাকি ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ- এমন প্রশ্নে নির্বাচন কমিশনার আবু হাফিজ বলেন, আপনারাই তো হিসাব করে দেখছেন। আমাদের হাতে আর বেশী সময় নেই।
    ইসি সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয় শাখায় তফসিল ঘোষণার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরি করা হচ্ছে। আচরণবিধি চূড়ান্ত করে পাঠানো হয়েছে আইন মন্ত্রণালয়ে। ভেটিং হয়ে এলে প্রয়োজনীয় ম্যানুয়াল ও মনোনয়নপত্রের মুদ্রণ শেষ করা হবে। এছাড়া জেলা প্রশাসকদের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসাবে ধরে তফসিলের আসনওয়ারি খসড়া প্রস্তুত করা শুরু হয়েছে গত বৃহস্পতিবার থেকে।নির্বাচন কমিশনার আবু হাফিজ বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, ভোট হতেই হবে। সরকারের ধারাবাহিকতাও রাখতে হবে। নির্বাচন করতে সাংবিধানিক সংস্থা হিসেবে আমাদেরও দায়বদ্ধতা আছে। একটি নির্দিষ্ট সময় পার হওয়ার পর তফসিল তো দিতেই হবে। দেশের মানুষের মতো কমিশনও সমঝোতার আশায় দলগুলোর দিকে তাকিয়ে আছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। তারা সব দলের অংশগ্রহণেই নির্বাচন চান বলে কমিশনার বলেন ।