ড. মুহাম্মদ ইউনূসের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি

    0
    216

    আমারসিলেট 24ডটকম,২৯সেপ্টেম্বরইসলাম ও মানবতা বিরোধী কার্যকলাপের জন্য ড. মুহাম্মদ ইউনূসের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে জাতীয় খতিব (ইমাম)সমাজ। শনিবার রাজধানিতে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররমস্থ কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী মিলনায়তনে বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ মুসল্লী কমিটি আয়োজিত খতিব সম্মেলনে বক্তারা এ দাবি জানান। তাখাসসুস কোর্স চালুকরণ, ফাতওয়া বোর্ড ও খতিব ওলামা কাউন্সিল গঠন এবং ইসলামের মৌলিক বিষয়ে অপব্যাখ্যারোধে করণীয় নির্ধারণের লক্ষ্যে এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
    অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ইসলামের বিপক্ষে যারাই বিভিন্ন অপপ্রচার করেছে তারাই ধ্বংস হয়েছে। ড. ইউনুস কুরআনও হাদীসে বিশ্বাস করলে কখনোই ইসলামের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারতেন না। অনুষ্ঠানে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল, খতিব শায়খুল হাদীস মাওলানা মনিরুজ্জামান রব্বানী, খতিব মাওলানা জহিরুল ইসলাম খতিব মাওলানা রফিকুল ইসলাম, খতিব মাওলানা মোম্মদ আবুল কালাম সহ রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদের খতিবগণ বক্তব্য রাখেন।
    ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান বলেন, কোরআন হাদিস বিরোধী যেকোন বিষয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে স্বোচ্চার থাকতে হবে। ইসলাম বিরোধী কোন অপব্যাখ্যা দেয়া হলে অবশ্যই আলেম সমাজকে তা রুখতে হবে। তিনি বলেন, আলেম সমাজই পারে ইসলামের অপব্যাখ্যাকারীদের ষড়যন্ত্র রুখে দিতে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল বলেন, দাওয়াতি কার্যক্রম মজবুত করতে এবং মসজিদের মিম্বর হেফাজত রাখতে দেশের খতিব সমাজকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।
    মিছবাহুর বলেন, একজন খতিব কখনো ইসলাম ধর্মকে বিভক্ত করতে পারে না। কারণ তাদের পিছনে দল মত নির্বিশেষে সবাই নামাজ পড়ে। কোন রাজনৈতিক দলের বা দুনিয়াবি রাজনৈতিক আলাপ মসজিদের মিম্বরে যেন না হয়, সেদিকেও খতিবদের দৃষ্টি রাখতে হবে। তিনি বলেন, ১৬ কোটি মানুষের দেশে মসজিদের মিম্বরটা কিভাবে হেফাজতে থাকে, দাওয়াতি কার্যক্রম কিভাবে মজবুত করা যায়, মুসলমানদের মধ্যে কিভাবে ঐক্য থাকে সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। আর এই দায়িত্ব পালনে সবার আগে খতিব (ইমাম)সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।