তিন দিনের সফরে উত্তরাঞ্চলে খালেদা জিয়া

    0
    222

    আমারসিলেট 24ডটকম , সেপ্টেম্বর  :  বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া তিন দিনের সফরে আজ শনিবার বিকেলে উত্তরাঞ্চলের পথে রওয়ানা হচ্ছেন। এ তিন দিনে তিনি বগুড়া, রাজশাহী ও রংপুর সফর করবেন। দলীয় সুত্রে জানা গেছে আজ বিকালে ঢাকার গুলশানের বাসভবন থেকে তিনি উত্তরাঞ্চলের দিকে রওনা হবেন। রাতে তিনি বগুড়া সার্কিট হাউসে অবস্থান করবেন। আগামীকাল রবিবার সকাল ১১টায় বগুড়া থেকে রংপুরের উদ্দেশে রওনা হবেন তিনি। কাল দুপুরে রংপুর সার্কিট হাউসে তিনি কিছু সময়ের জন্য বিশ্রাম নেবেন। বিকেলে রংপুরের জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন। জনসভা শেষ করে আবার বগুড়া সার্কিট হাউসে রাত কাটাবেন। পরের দিন সোমবার সকাল ১১টায় বগুড়া থেকে রাজশাহী যাবেন। দুপুরে সার্কিট হাউসে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেয়ার পর বিকেলে রাজশাহীর জনসভায় বক্তব্য রাখবেন। জনসভা শেষ করে রাজশাহী থেকে রাতেই তার ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে।
    এদিকে উত্তরাঞ্চলে তিন দিনের সফরকে কেন্দ্র করে নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। ওইসব এলাকায় জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বড় বড় ছবিসংবলিত ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে। পথে পথে তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। যেসব এলাকা দিয়ে এ দুই বিভাগে যাবেন বিরোধীদলীয় নেতা, সেসব জেলার নেতা-কর্মীদের মধ্যে সাজ সাজ রব পড়ে গেছে।
    আগামীকাল রবিবার জেলা স্কুলমাঠে অনুষ্ঠিতব্য বিএনপির জনসভাকে কেন্দ করে স্থানীয় রাজনীতির মাঠে নতুন চমকের অপেক্ষা করছে রংপুরবাসীর। রংপুরে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় জনসভা করার লক্ষ্যে দলের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার এ জনসভায় ১০ লাখের বেশি মানুষের সমাবেশ ঘটানো হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি নেতারা। প্রচারণার জন্য মাইকিং, মিছিল-মিটিংসহ আলোকসজ্জা করা হয়েছে শহরজুড়ে। নেত্রীকে বরণ করতে বানানো হয়েছে শতাধিক তোরণ। অঙ্গসংগঠনের ব্যানার আর পোস্টারে ছেয়ে গেছে নগরী।
    জনসভা আয়োজন প্রস্তুতি কমিটির সমন্বয়ক আসাদুল হাবিব দুলু বলেন, রবিবার দেশনেত্রীর জনসভা হবে রংপুরের মাটিতে এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় জনসভা। জনসভা উপলক্ষে পদক্ষেপ নেয়া বিভিন্ন কর্মসূচির বর্ণনা দেন তিনি। দুলু জানান, খালেদা জিয়ার জনসভা উপলক্ষে স্থানীয় প্রশাসন নানাভাবে সহযোগিতা করছে। তিনি জানান, খালেদা জিয়া রংপুরে ঢোকার প্রাক্কালে অশ্মারোহীরা অভ্যর্থনা জানিয়ে তাকে সার্কিট হাউসে নিয়ে আসবেন। সভাস্থলে শোনানো হবে রংপুরের ঐতিহ্যবাহী ভাওয়াইয়া এবং দেয়া হবে হাঁড়িভাঙ্গা আম ও ঐতিহ্যবাহী শতরঞ্জি। সমাবেশস্থলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং বাইরে থেকে আসা অতিথিদের সেবা প্রদানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি দলের পক্ষ থেকে পাঁচ শতাধিক নেতা-কর্মী নিয়োজিত থাকবে বলেও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।