তুরস্ক ও সিরিয়ায় মৃতের সংখ্যা ৩৩ হাজার পেরিয়েঃআন্তর্জাতিক সহায়তা আশানুরূপ নয়

0
188

আমার সিলেট ডেস্কঃ তুরস্ক এবং সিরিয়ার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে গত সোমবারের ভয়াবহ ভূমিকম্পে ৮,৪০০ কোটি ডলারের আর্থিক ক্ষতি হয়ে থাকতে পারে বলে দেশটির একটি ব্যবসায়ী গ্রুপ হিসাব তুলে ধরেছে। ভূমিকম্পে যে পরিমাণে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে আগে যে ধারণা করা হচ্ছিল এই হিসাব তার চেয়ে অনেক বেশি।একই সাথে ৩৩হাজারের অধিক মানুষের জীবন প্রদীপ নিভে গেছে,আহত হয়েছে অসংখ্য,ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২কোটি ৬০ লাখ মানুষের।
৮,৪০০ কোটি ডলারের আর্থিক ক্ষতি সংক্রান্ত বিষয়ে তথ্য প্রদানকারী তুরস্কের ওই ব্যবসায়িক গ্রুপের নাম পরিচয় প্রকাশ না করে এ খবর দিয়েছে মার্কিন ব্লুমবার্গ পত্রিকা। এর আগে আমেরিকা-ভিত্তিক ফিচ রেটিং এজেন্সি দাবি করেছিল যে, ভূমিকম্পে ২০০ থেকে ৪০০ কোটি ডলার কিংবা তার কিছু বেশি অংকের ক্ষয়ক্ষতি হয়ে থাকতে পারে।
ব্যাঙ্ক অব আমেরিকা ক্ষতির পরিমাণ ৩০০ থেকে ৫০০ কোটি ডলার বলে ধারণা দিয়েছিল। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছিল, এর সাথে জনগণের জন্য যে ত্রাণ সহায়তার প্রয়োজন হবে তার মূল্য হবে ২০০ থেকে ৩০০ কোটি ডলার। কিন্তু সর্বশেষ ক্ষয়ক্ষতির নতুন যে হিসাব তুলে ধরা হয়েছে তার পরিমাণ তুরস্কের জিডিপির ১০ ভাগের একভাগ।
গত সোমবার তুরস্ক এবং সিরিয়া সীমান্তবর্তী বিশাল এলাকা জুড়ে ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। এর কয়েক ঘণ্টা পর ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ৭.৬ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। এতে এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ৩৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এরমধ্যে তুরস্কে মারা গেছে ২৯ হাজার ৬০৫ জন এবং সিরিয়ায় নিহতের সংখ্যা তিন হাজার ৫০০’র বেশি।

অপর দিকে জাতিসংঘের জরুরি ত্রাণ সমন্বয়ক মার্টিন গ্রিফিথস বলেছেন, ভূমিকম্পে তুরস্ক ও সিরিয়ায় নিহতের সংখ্যা ৫০,০০০ ছাড়িয়ে যেতে পারে। তবে সরকারের হিসাবে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ২৯ হাজার ১১৭ জন মানুষ নিহত হয়েছেন।

মার্টিন গ্রিফিথস ব্রিটেনের স্কাই নিউজকে বলেছেন, “এখনও ধ্বংসস্তূপের নিচে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি আমরা। ফলে প্রকৃতপক্ষে কত মানুষ মারা গিয়েছেন তা চিন্তা করাও কঠিন। হতে পারে এই সংখ্যা দ্বিগুন বা তারও বেশি।”

মার্টিন গ্রিফিথস বলেন, ভূমিকম্পের পর ধ্বংসস্তূপের নিচে জীবিতদের বেঁচে থাকার সর্বোচ্চ স্বাভাবিক সময় ৭২ ঘন্টা। তা সত্ত্বেও এর অনেক পরে শনিবার ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে কিছু মানুষকে। উদ্ধার অভিযান কখন শেষ হবে তা বলা অবিশ্বাস্য রকম কঠিন। ভূমিকম্পের ফলে আন্তর্জাতিক যে সহায়তা আসছে তাও নিতান্তই কম বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ওইদিকে, শনিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে, গত সোমবারের ভূমিকম্পে তুরস্ক ও সিরিয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন কমপক্ষে ২ কোটি ৬০ লাখ মানুষ। বিধ্বস্ত বা ক্ষতিগ্রস্ত হাজার হাজার ভবনের মধ্যে বহু হাসপাতালও রয়েছে। তাৎক্ষণিক সহায়তা ও চিকিৎসার প্রয়োজন মেটাতে ৪ কোটি ২৮ লাখ ডলারের জন্য আবেদন জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এরইমধ্যে তারা জরুরি তহবিল থেকে ১ কোটি ৬০ লাখ ডলার ছাড় দিয়েছে।