দুই জোটের কাঁদা ছোড়াছুরিতে দেশ অরাজকতার দিকে

    0
    217

    “হবিগঞ্জ জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সম্মেলনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, সুন্নীয়তের রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে ইসলামী ফ্রন্টের নেতৃত্বকে শক্তিশালী করতে হবে”

    আমারসিলেট 24ডটকম ,২৮সেপ্টেম্বর,এস. এম. সুলতান খানআহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের আদর্শবাহী একক রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের হবিগঞ্জ জেলা সম্মেলনে ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলার জমিনে সুন্নীয়তের রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে ইসলামী ফ্রন্টের নেতৃত্বকে শক্তিশালী করার সাথে সাথে আদর্শবাহী কর্মী বাহিনী তৈরির মাধ্যমে সকল বিরোধী শক্তির মোকাবিলা করার প্রস্তুত থাকতে হবে। বক্তাগণ আরও বলেন, দুই জোটের কাঁদা ছোড়াছুরিতে দেশকে আজ অরাজকতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাই সাধারণ মানুষের মুক্তি ও শান্তিময় সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে আসন্ন ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের মতাদর্শের প্রতীক বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মোমবাতিতে ভোট দিয়ে জয় করার বিকল্প নেই।

    আজ শনিবার সকাল ১১ ঘটিকার সময় হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত কাউন্সিল অধিবেশন পূর্ব কর্মী সম্মেলনে ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। জেলা সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহিদুল ইসলাম বিএসসির পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন ইসলামী ফ্রন্টের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ আল্লামা আব্দুল করিম সিরাজ নগরী।

    বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব স.উ.ম আব্দুস সামাদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য মুফতি এ.টি.এম নূর উদ্দিন জঙ্গী, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সচিব আল্লামা মাসুদ হোসেন আল কাদেরী, সহ সাংগঠনিক সচিব এডভোকেট ইসলাম উদ্দিন দুলাল, মাওলানা আলী মোহাম্মদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য সচিব মাওলানা শাহজালাল আহমদ আখঞ্জী, কেন্দ্রীয় সাহিত্য সংস্কৃতি সম্পাদক মাওলানা ছোলাইমান খান রাব্বানী, মৌলভী বাজার জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মুহিত হাসানী। জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাওলানা রফিকুল ইসলাম জাফরী, অধ্যক্ষ এ.কে আফসার আহমেদ তালুকদার, এ.বি.এম ইয়াহিয়া খান, মাওলানা মতিউর রহমান হেলালী, মাওলানা এ.টি.এম রেজাউল করিম, মুফতি রফিকুল ইসলাম, মাওলানা মাঈনুদ্দীন, মাওলানা সাইফুল মোস্তফা, মাওলানা নাসির উদ্দিন, মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম তরফদার, কাজী মাওলানা আব্দুল জলিল, মাওলানা ক্বারী তৈয়ব আলী, কাজী আব্দুল করিম, মাওলানা হারুনুর রশীদ, মাওলানা ইউনুছ আনছারী, মাওলানা আঃ রাজ্জাক ও মাওলানা জসীম উদ্দিন প্রমুখ।

    পরে গোপন ব্যালটের মাধ্যমে সভাপতি পদে অধ্যাপক শহীদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক পদে অধ্যক্ষ মাওলানা সারোয়ারে আলম গোলাপ ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মাওলানা কাজী সাইফুল মোস্তফা নির্বাচিত হন।