দুবাই আন্তর্জাতিক শপিং ফেস্টিভ্যালে জমে উঠেছে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন

    0
    668

    দুবাই আন্তর্জাতিক শপিং ফেস্টিভ্যালে জমে উঠেছে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন। প্যাভিলিয়নের প্রতিটি স্টলেই প্রবাসী ক্রেতা দর্শনার্থীদের পদভারে মুখরিত। পাঁচ মাস ব্যাপী এ শপিং ফেস্টিভ্যাল চলবে আগামী ৩০ মার্চ পর্যন্ত। দেশীয় পণ্য কেনার জন্য প্রতিদিন প্রবাসীদের ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে চোখে পড়ার মতো। সংযুক্ত আরব আমিরাতে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশী বসবাস করায় তাদের চাহিদা অনুযায়ী এমনিতেই দেশটিতে রয়েছে বাংলাদেশী পণ্যের বিপুল সমাহার। তার ওপর আন্তর্জাতিক বাজারের মান দেশীয় নামি দামি কোম্পানী পণ্যসামগ্রী কিনতে পেরে খুশি প্রবাসীরাও। মেলায় আগত ক্রেতা দর্শনার্থীরা প্যাভিলিয়নের আয়োজক দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেট নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসায়ীদের বলেছেন, প্রতিবছর তারা এ রকম চমৎকার প্যাভিলিয়ন উপহার দেবেন, এমনটিই তাদের প্রত্যাশ। কারণ, তাতে প্রবাসীরা যেমন দেশীয় পণ্য কিনে ধন্য হবেন, তেমনি প্রতিযোগিতামূলক আন্তর্জাতিক বাজারে আরো ব্যাপকভাবে প্রচার ও প্রসার ঘটবে বাংলাদেশী পণ্যের।
    মেলায় বাংলদেশ প্যাভিলিয়নের ২০টি স্টলেই রয়েছে বাঙালি ঐতিহ্যের নিপুণ কারুকাজের পোশাক, খাদ্যদ্রব্য, শিল্পজাত পণ্যসহ বিপুল পণ্যের সমাহার। প্রতিটি স্টলেই প্রবাসী বাংলাদেশীদের পাশাপাশি ভিনদেশি ক্রেতা দর্শনার্থীদেরও ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।
    এবারের ফেস্টিভ্যালের আয়োজনটি হয়েছে অনেক বড় ও আকর্ষণীয়। সুলভ পণ্যমূল্য ছাড়াও এ মেলায় রয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম গোল্ড র‌্যাফেল, বিলাসবহুল গাড়ির র‌্যাফেল ও ক্রেতাদের জন্য চমকপ্রদ নানা পুরস্কার। মেলায় অংশগ্রহণকারী বিশ্বের ৬৫টি দেশের মধ্যে রয়েছে ৩৭টি দেশের প্যাভিলিয়ন। মেলায় ক্রেতা দর্শনার্থীদের সুবিধার জন্য রয়েছে একসাথে ১৬ হাজার ৫শ’ গাড়ি পার্কিং-এর সুশৃঙ্খল ব্যবস্থা। রয়েছে পর্যাপ্ত মসজিদ, রেস্টুরেন্ট, গেস্টরুম, মানিএক্সচেঞ্জ, এটিএমমেশিন, গেস্ট রিলেশন সেন্টার ও এম্বুলেন্স।

    মনসুর আহমদ, দুবাই থেকে
    মনসুর আহমদ, দুবাই থেকে