নবীগঞ্জে কাইয়ুমের নেতৃত্বে অপহরণ ও চাঁদাবাজির অভিযোগ

0
283

নূরুজ্জামান ফারুকী,বিশেষ প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জে কাইয়ুম নামের এক ব্যক্তি ও তার সহযোগী আরসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে অপহরণ ও চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেছেন লাভলু মিয়া নামের এক ব্যক্তি।

আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করে পিবিআইকে। বর্তমানে তদন্ত প্রায় শেষের দিকে লাভলু মিয়া নামের ওই ব্যক্তির করা অভিযোগের প্রায় শতভাগ সত্যতা পেয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পিবিআই হবিগঞ্জ।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহনেওয়াজ বলেন, লাভলু মিয়া নামের মামলার বাদী ওই ব্যক্তিকে কাইয়ুম তার সহযোগীদের নিয়ে অপহরণ করে তার বাড়িতে একটি ঘরের ভিতরে ঘুমানোর খাটের সাথে বেধে রাখে পরবর্তীতে ওই লোক কৌশলে ৯৯৯ কল করলে নবীগঞ্জ থানার এস আই হাবিব গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। তদন্তে আমরা এর সত্যতা পেয়েছি খুব তাড়াতাড়ি আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করব।

মামলা সূত্রে জানা যায় , গত ৬ অক্টোবর সন্ধ্যা প্রায় ৭টার দিকে ইনাতগঞ্জ বাজারের রাস্তা থেকে ইনাতগঞ্জ মোস্তফাপুর এলাকার বাসিন্দা সারফিক মিয়ার ছেলে আব্দুল কাইয়ুম তার সহযোগীদের নিয়ে লাভলু মিয়াকে অপহরণ করে তার বাড়িতে নিয়ে যায়।

এরপর কাইয়ুমের বাড়ির একটি ঘরের ভিতরে শোয়ার খাট এর সাথে তাকে বেঁধে মারধর করে এবং দুই লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। এক পর্যায়ে কৌশলে লাভলু ৯৯৯ কল করলে পুলিশ গিয়ে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

পরবর্তীতে ১০ অক্টোবর লাভলু বাদী হয়ে কাইয়ুম ও তার সহযোগী উপজেলার সুজাতপুর এর বাসিন্দা আলু মিয়ার ছেলে রুবেল আহমেদ (৩০),আমিনুল ইসলাম চৌধুরীর ছেলে আশরাফুল ইসলাম চৌধুরী (৪৫), মৃত আতাউর রহমানের ছেলে ইজাজুল রহমান (৩০) ও নজরুল ইসলামের ছেলে মিলাদ হোসেন (২৪) এর বিরুদ্ধে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত ৫ হবিগঞ্জে মামলা দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করে পিবিআইকে।