নবীগঞ্জে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াঃশহরজুড়ে আতঙ্ক

0
119

নূরুজ্জামান ফারুকী,বিশেষ প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে বিভক্ত দু’গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে শহর জুড়ে চরম উত্তেজনা ও উৎকন্ঠার সৃষ্টি হয়েছে। এতে শহরজুড়ে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। জনমনে আতঙ্ক উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। শুক্রবার (২৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নবীগঞ্জ শহরের নতুন বাজার মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

গত ৫ ডিসেম্বর হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রহমান রবিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে নবীগঞ্জ ছাত্রলীগের নতুন কমিটিতে নাজিম উদ্দৌলা চৌধুরীকে আহবায়ক, সজীব খান, সৈকত আহমেদ, ইমরান রেজাকে যুগ্ম আহবায়ক করে কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়। কমিটি ঘোষণার পরপর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দলীয় প্যাডে জাহিদুল ইসলাম রুবেলকে আহবায়ক করে অপর একটি কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছাড়িয়ে পড়ে। এরপর থেকে পাল্টা-পাল্টি কমিটিকে কেন্দ্র করে উভয় পরে নেতা কর্মীদের মধ্যে দেখা দেয় উত্তেজনা। শহরে উভয় পক্ষের পৃথক পৃথক শো-ডাউন লক্ষ্য করা যায়। কয়েকদিন ধরে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে আসছে।
কেন্দ্রীয় কমিটি অনুমোদিত কমিটির জাহিদুল ইসলাম রুবেল ও জয় আহমদের গ্রুপ পৌর ছাত্রলীগের ব্যানারের বৃহস্পতিবার বিশাল একটি মিছিল বের করা হয়।
এদিকে নবীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক নাজিম উদ্দৌলা চৌধুরী নেতৃত্বাধিন পক্ষ শুক্রবার দুপুরে আনন্দ মিছিল করার ঘোষণা দেয়। সে অনুযায়ী দুপুরে জুয়েল ম্যানশনের সামনে জড়ো হতে থাকে। এ খবরে জাহিদুল ইসলামের রুবেলের নেতৃত্বে পক্ষ শহরের রাজা কমপ্লেক্সের সামনে অবস্থান নেয়। এতে উভয় পক্ষের মাঝে দেখা দেয় উত্তেজনা। শহরজুড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
এক পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, এসিল্যান্ড, পুলিশ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে নিয়ে আসেন। আলোচনাক্রমে রুবেল ও জয় আহমদের গ্রুপকে মিছিল দেয়া থেকে বিরত রেখে নাজিম উদ্দৌলা চৌধুরী গ্রুপের মিছিল করার সিদ্ধান্ত দেয়া হয়। নাজিম উদ্দৌলা চৌধুরীর নেতৃত্বে তার গ্রুপের ছাত্রলীগের মিছিল খালিক মঞ্জিলের সামন থেকে নতুন বাজার মোড় হয়ে জুয়েল ম্যানসনে শেষ করার নির্দেশনা দেয়া হয়। কিন্তু মিছিলটি বাজার প্রদক্ষিণ করে জুয়েল ম্যানসন পয়েন্টে না থেমে পুণঃরায় নতুন বাজার মোড়স্থ নিম্বর টাওয়ারে এসে পথসভা করার চেষ্টা করে। এতে রাজা কমপ্লেক্সের নিকট অবস্থানরত জাহিদুল ইসলাম রুবেল ও জয় আহমদ গ্রুপের নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে পুলিশের ব্যারিকেট ভেঙ্গে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। উভয় পক্ষই লাটি, সোটা, রামদা নিয়ে একে অপরকে আক্রমনের চেষ্টা করলে শহরে রণক্ষেত্র পরিনত হয়। সাধারণ মানুষ, পথচারী ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা দিকবিদিক ছুটাছুটি করতে দেখা যায়। এ সময় জেলা কমিটি অনুমোদিত উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক নাজিম উদ্দৌলা চৌধুরী আহত হন। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে জাহিদুল ইসলাম রুবেল অভিযোগ করে বলেন- আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে বিএনপি-জামায়েতের নাশকতার পরিকল্পনার বিরুদ্ধে আমরা শহরে অবস্থান নেই। এ সময় নাজিম উদ্দৌলার নেতৃত্বে আমাদের উপর হামলা করা হয়। পরে আমরা তাদের প্রতিহত করি।
উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক নাজিম উদ্দৌলা চৌধুরী বলেন- জেলা ছাত্রলীগের দিক-নির্দেশনায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নব-গঠিত কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে আমরা মিছিল করি, মিছিল শেষে নতুন বাজার মোড়ে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জাহিদ রুবেলের নেতৃত্বে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা আমাদের উপর হামলার চেষ্টা করলে আমরা তাদের প্রতিহত করে ধাওয়া দিলে তারা পালিয়ে যায়।
নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) গোলাম মুর্শিদ সরকার বলেন- ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সামান্য ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে তবে পুলিশ পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।