নবীগঞ্জে নিখোঁজের দু’দিন পর ধানক্ষেতে লাশের সন্ধান

0
451
নবীগঞ্জে নিখোঁজের দু’দিন পর ধানক্ষেতে লাশের সন্ধান

“স্থানীয় লোকজন ও তার পরিবারের ভাষ্য অনুযায়ী কাতল মিয়া মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। তার শারীরিক সমস্যাও ছিল। কোথাও পড়ে গেলে তিনি কারো সাহায্য ছাড়া উঠতে পারতেন না, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে বাড়ি থেকে বের হয়ে ধানক্ষেতের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তিনি ধানক্ষেতে পড়ে গিয়ে আর উঠতে পারেননি এতে তার মৃত্যু হয়” পুলিশ পরিদর্শক সামছু উদ্দিন খান

নূরুজ্জামান ফারুকী, বিশেষ প্রতিনিধি: নবীগঞ্জ উপজেলায় নিখোঁজের দু’দিন পর কাতল মিয়া (৭৫) নামে এক বৃদ্ধ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১) বিকেলে উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের ভানুদেব গ্রামের কাতল মিয়ার বাড়ির সামনের ধানক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। কাতল মিয়া একই গ্রামের মৃত জাহির মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, কাতল মিয়া মানসিক ভারসাম্যহীন। তিনি প্রায়ই একটি লাঠি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে বিভিন্ন স্থানে চলে যান। আবার কয়েকদিন পর বাড়িতে ফিরে আসেন। অন্যান্য বারের মতো গত

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১) সকালে কাতল মিয়া বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেননি। গতকাল মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নিজের ধানক্ষেতে কাজ করতে যান ভানুদেব গ্রামের হরছত মিয়া। এ সময় তিনি তার ধানক্ষেতে একটি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেন।

খবর পেয়ে গোপলার বাজার তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক সামছু উদ্দিন খানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করা হয়।

এ প্রসঙ্গে গোপলার বাজার তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক সামছু উদ্দিন খান লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, “স্থানীয় লোকজন ও তার পরিবারের ভাষ্য অনুযায়ী কাতল মিয়া মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। তার শারীরিক সমস্যাও ছিল। কোথাও পড়ে গেলে তিনি কারো সাহায্য ছাড়া উঠতে পারতেন না, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে বাড়ি থেকে বের হয়ে ধানক্ষেতের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তিনি ধানক্ষেতে পড়ে গিয়ে আর উঠতে পারেননি এতে তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে জানতে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ডালিম আহমেদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে,তদন্ত শেষে প্রকৃত ঘটনা বলে যাবে।