নবীগঞ্জে সংঘর্ষে অজ্ঞাতসহ ৩শ জনের বিরুদ্ধে মামলা! গ্রেফতার-১৪

0
108
নবীগঞ্জে সংঘর্ষে অজ্ঞাতসহ ৩শ জনের বিরুদ্ধে মামলা! গ্রেফতার-১৪

নূরুজ্জামান ফারুকী,নবীগঞ্জ থেকে: নবীগঞ্জ শহরে তিন ঘন্টাব্যাপী ভয়াবহ সংঘর্ষের পুলিশ আহত হবার ঘটনায় উভয় পক্ষের ৩০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ২৫০/৩০০ জন লোকের বিরুদ্ধে পুলিশ এসল্ট মামলা দায়ের করা হয়েছে।
নবীগঞ্জ থানার এসআই বিজয় দেব নাথ বাদী বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) মামলাটি দায়ের করেন। সংঘর্ষ চলাকালে আটক ১৪জনকে দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ উপজেলার ৬নং কুর্শি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ খালেদুর রহমান খালেদ ও নবীগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনমনু গ্রামের মোঃ নানু মিয়ার লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। দফায় দফায় সংঘর্ষ ও ইট পাটকেলের ঘটনায় রাজা কমপ্লেক্সসহ ২০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করা হয়।
সংঘর্ষে নবীগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত গোলাম মুর্শিদ, এসআই পরিমলসহ ৭জন পুলিশ সদস্য আহত হন।
এদিকে সংঘর্ষ চলাকালে ১৪ জনকে পুলিশ আটক করে। আটককৃত হচ্ছে- ইনাতাবাদ গ্রামের মোঃ আশফাক আলীর পুত্র নাসির মিয়া (২৫), একই গ্রামের ছাদিক মিয়ার পুত্র আবু জাহেদ (৩৪), মৃত সমাই উল্লাহর পুত্র ফজল মিয়া (৩৮), মৃত খাফল উল্লার পুত্র ছুনু মিয়া (৩৪), সাজ্জাদ আলীর পুত্র জুবেদ মিয়া (২৪), মৃত ইস্কন্দর মিয়ার পুত্র বিল্লাল মিয়া (২৩), রুঘু মিয়ার পুত্র রাজু মিয়া (২৪), অনু মিয়ার পুত্র দিলদার (২৬), মালিক মিয়ার পুত্র খালেদ মিয়া (২৮), মৃত আব্দুল মন্নাফের পুত্র সোলেমান (৩৫), মৃত ফারাজ মিয়ার পুত্র মইন উদ্দিন (২১) ও মোঃ ফাহাদের পুত্র মোঃ মাফিন উদ্দিন (২০) ্এবং আনমুনু গ্রামের হিযবু মিয়ার পুত্র তৌহিদ মিয়া (৩৫) ও মৃত এলাইছ মিয়ার পুত্র অন্তর মিয়া (২৬)কে পুলিশ এসল্ট মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।