নবীগঞ্জে স’মিল শ্রমিক সংঘের সভায় শ্রম আইন বাস্তবায়নের দাবি

    0
    209

    আমারসিলেট24ডটকম,২৪জানুয়ারীঃ স’মিল সেক্টরে সরকার ঘোষিত নিম্নতম মজুরির গেজেট কার্যকর এবং ৮ ঘন্টা কর্মদিবস, নিয়োগ পত্র, পরিচয় পত্রসহ শ্রম আইন বাস্তবায়ন করার দাবিতে ২৩ জানুয়ারী নবীগঞ্জ উপজেলার রসুরগঞ্জ বাজারে স’মিল শ্রমিকরা সভ করেছে। স’মিল শ্রমিক সংঘ নবীগঞ্জ উপজেলা কমিটির আহবায়ক শাফিক মিয়ার সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রজত বিশ্বাস এবং বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন স’মিল শ্রমিক সংঘ সিলেট বিভাগ কমিটির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন ও হবিগঞ্জ জেলা কমিটির আহবায়ক মাহবুব মিয়া। সভায় বক্তব্য রাখেন স’মিল শ্রমিক সংঘ হবিগঞ্জ জেলা কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক সাহেদ মিয়া, বাহুবল উপজেলা কমিটির আহবায়ক ফারুক মিয়া, নবীগঞ্জ উপজেলা কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক আনকার মিয়া, মোঃ কুদরত মিয়া, আল আমিন, ইকবাল হোসেন, বাবুল পাল, ফরিদ মিয়া প্রমূখ।
    সভা শুরুতে স’মিল শ্রমিক সংঘ নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার সদস্য মোঃ নুরুদ্দিন আহমেদের মৃত্যুতে তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় এবং উপস্থিত শ্রমিকদের নিকট হতে তাৎক্ষণিক সহযোগিতা উঠিয়ে পরিবারের হাতে তোলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।
    সভায় বক্তারা বলেন দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রামের পর সরকার গত ২৫ সেপ্টেম্বর স’মিল সেক্টরের শ্রমিকদের জন্য নিম্নতম মজুরির গেজেট প্রকাশ করেছেন। যদিও ঘোষিত মজুরি বর্তমান বাজারদরের সাথে সংগতিপূর্ণ নয়, তারপরও স’মিল মালিকরা সরকার ঘোষিত নিম্নতম মজুরির চেয়ে আরও কম মজুরি দিচ্ছেন। শুধু তাই নয় স’মিল শ্রমিকরা দেশের প্রচিলত শ্রম আইনের সকল সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। বক্তারা সরকার ঘোষিত নিম্নতম মজুরির গেজেট কার্যকর, শ্রমিকদের জন্য রেশনিং চালু, ৮ ঘন্টা কর্ম দিবস, নিয়োগ পত্র, পরিচয় পত্রসহ শ্রম আইন বাস্তবায়ন, কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা ও কাজের পোষাক প্রদান, শ্রীমঙ্গলে স্থায়ী শ্রম আদালত ও যুগ্ম-শ্রম পরিচালকের কার্যালয় স্থাপন করার দাবি জানান। এছাড়া সভায় সাম্রাজ্যবাদ ও সাম্রাজ্যবাদের সাথে দালাল ভারত সরকারের সমন্বিত পরিকল্পনায় জাতীয় স্বার্থ বিরোধী ট্রান্সশিপমেন্ট, ট্রানজিট, করিডোর প্রদানের প্রতিবাদে আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট-এনডিএফ ঘোষিত আশুগঞ্জের কেন্দ্রীয় সমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে সকল উপজেলা থেকে প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত হয়।
    সভায় উপস্থিত সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে মোঃ শাফিক মিয়াকে সভাপতি ও মোঃ আনকার মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে স’মিল শ্রমিক সংঘ নবীগঞ্জ উপজেলা কমিটি পুণগঠন করা হয়। কমিটির অন্যরা হলেন সহ-সভাপতি মোঃ আছকির মিয়া, সহ-সাধারণ সম্পাদক সামছু মিয়া ও মোঃ শফাত মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ওয়াকিদ মিয়া, কোষাধ্যক্ষ আব্দুল বার, প্রচার সম্পাদক আব্দুল হাই, দপ্তর সম্পাদক মোঃ কুদরত মিয়া, সদস্য আবদাল মিয়া ও ইজাজুল ইসলাম।