নৌকা নিয়ে ফিরলেন শেখ আফিল উদ্দিন: শার্শায় গণসংবর্ধণার জোয়ার

0
116

বেনাপোল প্রতিনিধি: নৌকার মাঝি হয়ে তিন তিনবার হ্যাট্রিক করা নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন চতূর্থবারের মত সাংসদ হতে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন-২০২৪ এ অংশ নিতে ৫ম বারের মত নৌকার প্রতীক পান। রবিবার (২৬ নভেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর বাসভবণ গণভবনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাথে দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক মতবিনিময় সভায় আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রার্থীদের নামের তালিকা ঘোষণা করেন।
নৌকার চুড়ান্ত মনোনয়ন নিয়ে মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা থেকে তিনি যশোর বিমান বন্দরে এসে পৌঁছান। প্রিয় নেতাকে গ্রহণ করতে যশোর বিমান বন্দরে হাজির হন শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জু এবং শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ইব্রাহীম খলিল এর নেতৃত্বে শার্শা উপজেলা আওয়ামীলগ এবং বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি এনামুল হক মুকুল ও সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র নাসির উদ্দিন এর নেতৃত্বে বেনাপোল পৌর আ’লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতা-নেতৃবৃন্দ। ফুল দিয়ে তাকে বরণ করে নেন নেতৃবৃন্দ। এরপর তিনি তার নির্বাচিত এলাকা ৮৫ যশোর-১ শার্শার নাভারণ এসে পৌঁছলে শার্শার সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম তবিবুর রহমান সরদার এর কবর জিযারত করেন।
কবর জিয়ারত শেষে নাভারণ ফজিলাতুন্নেছা মহিলা কলেজে শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীদের ফুলেল শুভেচ্ছা গ্রহণ করেন। পরে নাভারণ বাজারস্থ আ’লীগ অফিস কার্যালয়ে গেলে ফুল এবং মিষ্টি বিতরণের মধ্য দিয়ে গণসংবর্ধণা প্রদান করেন শার্শা ইউনিয়ন আ’লীগের দলীয় নেতা-কর্মীসহ স্থানীয় সাধারণ মানুষ। সেখানে নেতা-কর্মীদের সাথে তিনি কুশল বিনিময় করেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বৈতরনী পার হতে কি কি করণীয় বিষয় রয়েছে সে সম্পর্কে তিনি নেতা-কর্মীদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।
সেখান থেকে তিনি শার্শা উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে যান এবং সেখানে তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে “বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল” এ পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। সেখানে তিনি কিছু সময় অবস্থান করেন। এরপর তিনি বেনাপোল পৌর আ’লীগ কার্যালয়ে বেনাপোল পৌরসভার মেয়র এবং কাউন্সিলরগণ, শার্শা উপজেলা যুব মহিলালীগ, বন্দরের ট্রাংক, লরী ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক সংগঠনসহ বিভিন্ন সংগঠনের দেওয়া সংবর্ধণায় সিক্ত হন। পরে বেনাপোল বন্দরের ৩নং গেইট অভ্যন্তরে কাঁচা মালের ২২ নং শেড এ ৮৯১ এবং ৯২৫ রেজিঃ নং যৌথ হ্যান্ডলিং শ্রমিক কর্তৃক আয়োজিত গণসংবর্ধণার মঞ্চে অংশ নেন।
মঞ্চের ঐ আলোচনায় শেখ আফিল উদ্দিন সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, ২০০৮ সালের নির্বাচনে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ইশতেহার দেওয়া হয়েছিল যা ছিল অতীতের ইশতেহারগুলোর থেকে একেবারেই ভিন্ন। তাতে খাতভিত্তিক ডিজিটালাইজেশনের রূপরেখা ছিল। এরপর ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে দেওয়া ইশতেহার দুটিতে মূলত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে উন্নয়ন ও অগ্রগতি তুলে ধরার পাশাপাশি খাতভিত্তিক আরও কী কী করা হবে, সেসব প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। সময়ের চাহিদা অনুযায়ী, এবার ডিজিটাল বাংলাদেশের চূড়ান্ত পর্যায় হিসেবে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার করা হবে।
এতে সবক্ষেত্রে ডিজিটালাইজেশনের অগ্রগতি ও সুফল তুলে ধরার সঙ্গে স্মার্ট সেবা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হবে। এরজন্য চাই আপনাদের সহযোগীতা এবং ভোট।
আসছে ৭ জানুয়ারী/২০২৪ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন, “স্মার্ট বাংলাদেশ” গড়তে এই নির্বাচনে আ’লীগকে ভোট দিতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। প্রিয় নেত্রীর প্রিয় নৌকার মাঝি হয়ে বিগত দিনের ন্যায় আগামীতেও শার্শার উন্নয়ণে কাজ করতে চায়। আপনাদের ভাগ্যের পরিবর্তণ ঘটাতে চায়, আপনাদের সেবা করতে চায়। এর জন্য চায় আপনাদের সমর্থন এবং ভোট। আমি আশা করি বিগত নির্বাচনের ন্যায় এবারও আপনারা আমাকে ভোট দিবেন। এই প্রার্থনা রইল আপনাদের নিকট। সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করেন সভা।
বন্দরে সভা শেষ করে তিনি অত্র উপজেলাধীন বাগআঁচড়া ইউনিয়নের স্কুল মাঠে গণসংবর্ধনায় যোগ দেন। সেখানকার বাগআঁচড়ার ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল খালেকসহ সাবেক চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কবির বকুল, সাবেক চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ টিংকু এবং কায়বা ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলামসহ সেখানকার আ’লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীবৃন্দ “নৌকা” উপহার দিয়ে শেখ আফিল উদ্দিন কে শুভেচ্ছা জানান।
এদিকে, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি এবং মেসার্স শামছুর রহমান এর স্বত্বাধিকারী আলহাজ্ব শামছুর রহমান এর মা’য়ের ইন্তেকালে শোক জানিয়েছেন শেখ আফিল উদ্দিন। এক শোক বার্তায় তিনি শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।