পরোয়ানা গুলশান থানায় পৌঁছলেই পুলিশ ব্যবস্থা নেবে:প্রধানমন্ত্রী

    0
    237

    “কোর্ট থেকে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে দেশের যে কোনো নাগরিকের দায়িত্ব হচ্ছে কোর্টে আত্মসমর্পন করা। আর দায়িত্বশীল নাগরিক অতি দ্রুততার সঙ্গে কোর্টের আদেশ মান্য করবেন, এটাই সারাবিশ্বে প্রতিষ্ঠিত। কিন্তু খালেদা জিয়া কোর্টে আত্মসমর্পণ না করে অত্যান্ত খারাপ নজির সৃষ্টি করেছেন”

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১১মার্চঃ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জারিকৃত গ্রেফতারি ও তার কার্যালয়ে তল্লাশির পরোয়ানা গুলশান থানায় পৌঁছলেই পুলিশ ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

    বুধবার বিকেলে জাতীয় সংসদে একথা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, “কোর্ট থেকে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে দেশের যে কোনো নাগরিকের দায়িত্ব হচ্ছে কোর্টে আত্মসমর্পন করা। আর দায়িত্বশীল নাগরিক অতি দ্রুততার সঙ্গে কোর্টের আদেশ মান্য করবেন, এটাই সারাবিশ্বে প্রতিষ্ঠিত। কিন্তু খালেদা জিয়া কোর্টে আত্মসমর্পণ না করে অত্যান্ত খারাপ নজির সৃষ্টি করেছেন। এজন্য আমি বলতে চাই, আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে, আর আইনকে সমুন্নত রাখা সরকারের দায়িত্ব।”

    অপরদিকে , বুধবার সকালে খাদ্যমন্ত্রী এবং ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা আমলে নেয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র।

    আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে যথাসময়েই উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোন ধরনের ছাড় দেয়া হবে না।

    কামরুল ইসলাম আজ সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে আয়োজিত এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

    এদিকে,  বিএনপি’র নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জেটের চলমান হরতাল-অবরোধ  কর্মসূচি প্রত্যাহারে বিরোধী জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ২৪ ঘণ্টার সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে  সরকার সমর্থক চিকিৎসকরা। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কর্মসূচি প্রত্যাহার না করলে প্রতিরোধ করারও ঘোষণা দেন তারা।

    অবরোধ ও হরতাল প্রত্যাহারের দাবিতে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খানের কাছে একটি স্মারকলিপি জমা দিয়ে বেরিয়ে এসে আজ বুধবার দুপুরে সরকারপন্থি চিকিৎসকরা সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

    সংসদ সদস্য ও চিকিৎসক ডা. হাবিবে মিল্লাত স্মারকলিপি জমা দিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, গণতান্ত্রিক আন্দোলনের নামে দেশব্যাপী হরতাল ও অবরোধে যে সহিংসতা চলছে তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে এবং চলমান কর্মসূচি প্রত্যাহারের দাবিতে আমরা খালেদা জিয়ার কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়েছি। আশা করি মানবিক দৃষ্টি কোন থেকে তিনি বর্তমান চলমান কর্মসূচি প্রত্যাহার করবেন।

    এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ডা. ইউনুস আলী সরকার, সাবেক স্বাস্থ্য আ ফ ম রহুল হক ও ডা. এনামুর রহমান প্রমুখ।

    এ সময় বিএনপি চেয়াপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান সারাদেশে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের বিনাবিচারে হত্যা বন্ধ করতে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে একটি স্মারকলিপি দিতে চিকিৎসকদের পরামর্শ দিয়েছেন। পাশাপাশি  বিরোধী রাজনৈতিক জোটের নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার, দেখামাত্র গুলিসহ সরকারি নির্যাতন বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যেতেও  চিকিৎসকদের অনুরোধ করেন তিনি।