প্রধানমন্ত্রীর সাথে চা-শ্রমিকদের সাক্ষাতের দাবি পুরণে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

0
308

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ দৈনিক ৫০০ শত টাকা পরবর্তীতে ৩০০ টাকা মজুরীর দাবিতে প্রথমে কর্মবিরতি ও পরবর্তীতে চা-শ্রমিকদের ১৯ দিনব্যাপী আন্দোলনের শেষ দিকে হয় ৩০০ টাকা মুজুরী নয়তো প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত এর আওয়াজ তুলে চা শ্রমিকরা। প্রধানমন্ত্রীর সাথে চা-শ্রমিকদের সাক্ষাতের ওই দাবি পুরণে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।
সরকার ও শ্রমিকপক্ষের কয়েক দফা আলোচনার পর চা বাগান এর সাথে জড়িত মালিকপক্ষ ও নেতৃবৃন্দকে দালাল সম্মোধন করে একটাই দাবী করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরাসরি অথবা ভিডিও কনফারেন্সে সাক্ষাৎ চাই। চা শ্রমিকরা রাস্তা অবরোধ করে মিডিয়ার মাধ্যমে তাদের সাক্ষাতের বিষয়টি জানালে বিষয়টি আমলে নিয়ে অবশেষে স্থানীয় সাংসদ জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের সর্বশেষ সার্বিক যোগাযোগের পরিপেক্ষিতে অবশেষে চা শ্রমিকদের স্বপ্ন পুরণ হতে চলেছে।

জানা যায়,আগামীকাল ৩ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকাল চারটায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে দেশের চারটি চা বাগানএলাকার শ্রমিকদের সাথে সিলেট-হবিগঞ্জ-মৌলভীবাজার-চট্রগ্রামে মতবিনিময় করবেন।
সে উপলক্ষে মৌলভীবাজার জেলার পাত্রকলায় প্যান্ডেল তৈরীর কাজ এগিয়ে চলেছে।
আজ ২ সেপ্টেম্বর প্যান্ডেল পরিদর্শনে যান শ্রীমঙ্গল কমলগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক চিফ হুইপ অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান,কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যাপক রফিকুর রহমান, মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, সিনিয়র পুলিশ সার্কেল শ্রীমঙ্গল কমলগঞ্জ শহিদুল ইসলাম মুন্সি,,শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রাজিব মাহমুদ মিঠুন,কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিন,,কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌছ হাসানসহ স্থানীয় রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ ও প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ,প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সের তথ্যটি স্থানীয় সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মোঃ আব্দুস শহীদ এর পিএ ইমাম হোসেন সোহেল নিশ্চিত করেছে।
উল্লেখ্য চা শ্রমিকদের দাবি অনুযায়ী শেখ হাসিনা ১২০ টাকা থেকে ১৭০ টাকায় নির্ধারণ করলে চা শ্রমিকরা আনন্দ মিছিল করে কাজে যোগদান করেন।