প্রাথমিক স্তর ৮ম শ্রেণি উন্নীতকরণে কমিটি : তিন মাসের মধ্যে প্রতিবেদন

    0
    463

    ঢাকা, ২৫ এপ্রিল : প্রাথমিক স্তর ৫ম শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণিতে উন্নীতকরণে একটি কর্ম-পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটিতে নেতৃত্ব দিবেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব। আগামী তিন মাসের মধ্যে এ কমিটি এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন জমা দেবে। ‘জাতীয় শিক্ষানীতি ২০১০’ এর আলোকে প্রাথমিক স্তর ৮ম শ্রেণিতে উন্নীতকরণে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে।
    গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে জাতীয় শিক্ষানীতি বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কেন্দ্রীয় কমিটির এক সভায় এ কমিটি গঠন করা হয়। সভায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী ডা. আফছারুল আমিন, প্রতিমন্ত্রী মো. মোতাহার হোসেন, শিক্ষাসচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব কাজী আকতার হোসেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শ্যামল কান্তি ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

    প্রাথমিক স্তর ৮ম শ্রেণি উন্নীতকরণে কমিটি : তিন মাসের মধ্যে প্রতিবেদন
    প্রাথমিক স্তর ৮ম শ্রেণি উন্নীতকরণে কমিটি : তিন মাসের মধ্যে প্রতিবেদন

    সভায় জাতীয় শিক্ষানীতির আলোকে শিক্ষার প্রাথমিক স্তর বর্তমান ৫ম শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণিতে উন্নীতকরণের বিভিন্ন দিক বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। ইতোমধ্যে পাইলট প্রকল্প হিসেবে সারাদেশে ৪৯৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণি চালু করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। ভবিষ্যতে তা পর্যায়ক্রমে বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে।
    শিক্ষামন্ত্রী সভায় বলেন, সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য একটি জাতীয় শিক্ষাপ্রণয়ন করা বর্তমান সরকারের উল্লেখযোগ্য কাজসমূহের মধ্যে অন্যতম। প্রাথমিক স্তরে প্রায় শতভাগ ভর্তি নিশ্চিত করা, প্রাথমিক-মাধ্যমিকে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা সমতা অর্জন, পাবলিক পরীক্ষা সংস্কার, শিক্ষার মানোন্নয়ন, সৃজনশীল প্রশ্নপদ্ধতি চালু করা, কারিকুলাম যুগোপযোগী করা, প্রাথমিক-মাধ্যমিকে সকল শিক্ষার্থীকে পাঠ্যবই প্রদান, শিক্ষক প্রশিক্ষণসহ জাতীয় শিক্ষানীতির অনেক কাজ ইতোমধ্যে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। ২০১৮ সালের মধ্যে পর্যায়ক্রমে সম্পূর্ণ বাস্তবায়ন করা হবে। তিনি প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষাকে একটি সামষ্টিক কাজ উল্লেখ করে বলেন, যার যার দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সামগ্রিক বিষয়টি বিবেচনায় রাখতে হবে। সবাই মিলে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই শিক্ষানীতি বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করতে হবে।