বড়লেখায় ইউএনও বরাবরে আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপি প্রদান

0
260

আফজাল হোসেন রুমেল, বড়লেখা প্রতিনিধিঃ ধর্মীয় ও সামাজিক সংগঠন আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবরে জনস্বার্থে সড়কে জনদুর্ভোগ লাগবে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করার দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

এ সংক্রান্ত একটি স্মারকলিপি বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুনজিত কুমার চন্দ মহোদয়ের নিকট প্রদান করেছে আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশন। এসময় স্মারকলিপি প্রদানে সহযোগিতা করে জাতীয় সামাজিক সংগঠন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) বড়লেখা উপজেলা শাখা।

আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি হাফিজ তায়্যিবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আফজাল আহমদের তত্ত্বাবধানে স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন নিসচার কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সদস্য ও বড়লেখা উপজেলা শাখার সভাপতি সাংবাদিক তাহমীদ ইশাদ রিপন, সহ-সভাপতি মার্জানুল ইসলাম, আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মাওলানা আব্দুস সামাদ, মাওলানা হাফিজ আব্দুল হান্নান, সহ-সভাপতি আবুল হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান, সহ-সাধারণ সম্পাদক হাসান আহমদ, অর্থ সম্পাদক হাফিজ আবুল কাশেম তাহসান, প্রচার সম্পাদক আকরাম হোসেন, নিসচা বড়লেখা উপজেলা শাখার কার্যনির্বাহী সদস্য এনাম উদ্দিন ও কলেজ শিক্ষার্থী আকিফ আহমদ, জাহাঙ্গীর হোসাইন প্রমুখ।

আস সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের নেতৃবৃন্দরা বলেন, জনপ্রিয় জাতীয় সামাজিক সংগঠন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) দীর্ঘদিন থেকে জনস্বার্থে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে এবং বিভিন্নভাবে তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। নিসচার কার্যক্রমে অনুপ্রাণিত হয়ে আমরা জনকল্যাণমুখী কার্যক্রমের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি তাছাড়া আমাদেরও সামাজিক সংগঠন হিসেবে দায়বদ্ধতা রয়েছে। তাই জনস্বার্থে জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে নিসচা নেতৃবৃন্দন্দের সাথে তাৎক্ষণিকভাবে পরামর্শ করে আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশন সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে জনকল্যাণমুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। আমরা মনে করি জনস্বার্থে যে যার স্থান থেকে জনদুর্ভোগ লাগবে সচেষ্ট ভূমিকা পালন করবেন।

এ সময় নিসচা নেতৃবৃন্দরা বলেন, বড়লেখা উপজেলায় সাড়া জাগানো ধর্মীয় ও সামাজিক সংগঠন আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশন জনস্বার্থে জনকল্যাণমুখী যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে তা প্রশংসার দাবি রাখে। এভাবে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে প্রত্যেকটি সামাজিক-স্বেচ্ছাসেবী, ক্রীড়া-সাংস্কৃতিক সংগঠন জনস্বার্থে জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে সড়ক দুর্ঘটনারোধে জনসচেতনতার লক্ষে এগিয়ে আসা উচিত। আমরা প্রায় পাঁচ বছর থেকে জনস্বার্থে বড়লেখা উপজেলায় সড়ক দূর্ঘটনা রোধে জনসচেতনতা মূলক কর্মকান্ডসহ বিভিন্ন সামাজিক-মানবিক ও স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি। আমরা মনে করি সকলের সার্বিক প্রচেষ্টায় জনদুর্ভোগ লাগব হবে এবং জনসচেতনতার পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনারোধে সচেষ্ট ভূমিকা পালন করবে।

আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের স্মারকলিপিতে তারা উল্লেখ করেন, বড়লেখা টু সিলেট /মৌলভীবাজার সড়কে বিআরটিসি (এসি.ননএসি) বাস চালু করা প্রয়োজন।
উত্তর চৌমুহনী ও পাখিয়ালা চৌমুহনীতে যানবাহন ডিভাইডেড চত্ত্বর নির্মাণ করা প্রয়োজন এবং সকাল ৯ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত দু’জন ট্রাফিক নিয়োগ একান্ত জরুরি।
যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং বন্ধ করা ও ফুটফাত মুক্ত বাজার ব্যবস্থাপনা জরুরি।
স্থায়ীভাবে যানযট মুক্ত শহর গড়তে বড়লেখা শহরের পশ্চিম আবর্তে অবস্থিত রেলওয়ে পথে একটি বাইপাস রোড আবশ্যক।
যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন এলাকায় (বোবারথল, ইসলামপুর) যোগাযোগ স্থাপনে বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
শহরে সি.সি ক্যামেরা স্থাপন করার জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি।
রমজান মাসে দিনের বেলায় হোটেল-রেস্তুরা বন্ধ রাখা, বিশেষ করে প্রকাশ্যে খাওয়া-দাওয়ার উপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের অনুরোধ করছি।

যথাযথভাবে পদক্ষেপ গ্রহনসহ উক্ত প্রস্তাবনা সমূহের প্রতি প্রয়োজপেেপপনীয় কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের দাবি জানিয়েছে আস-সুন্নাহ জনকল্যাণ ফাউন্ডেশন।

স্মারকলিপি প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুনজিত কুমার চন্দ। তিনি বলেন, মানুষের যাত্রা নিরাপদ করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তর গুলোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যকরী ভূমিকা পালন করছে তাছাড়া আমরাও তৎপর রয়েছি।