বানিয়াচং এ পুত্রের আঘাতে মায়ের মৃত্যু!

0
623

নূরুজ্জামান ফারুকী,বিশেষ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে পুত্রের শিলের (নোড়া) আঘাতে গর্ভধারিনী মায়ের মৃত্যু হয়েছে। নিহত নারীর নাম রাবেয়া খাতুন (৫৪) ঘটনাটি ঘটেছে বানিয়াচং উপজেলার ৬ নম্বর কাগাপাশা ইউনিয়নের চানপুর গ্রামে।

সোমবার (২৬ জুন) রাত ৩টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই নারীর মৃত্যু হয়। নিহত নারী ওই গ্রামের কৃষক শ্রমিক মফিল মিয়ার স্ত্রী।
ঘাতক পুত্র রিপন মিয়া স্ত্রী-সন্তান নিয়ে পালিয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, নিহত নারীর বড় পুত্র রিপন মিয়া (২৩) বিয়ে করে পৃথকভাবে একই বাড়িতে বসবাস করতেন। পৃথক পরিবারে বসবাস করলেও রিপনের স্ত্রীর সঙ্গে সাংসারিক বিষয় নিয়ে নিহত শাশুড়ী রাবেয়া বেগমের ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকতো। এরই জের ধরে রবিবার (২৫ জুন) বিকাল ৩টায় নিহত নারীর সঙ্গে তার ছেলে রিপনের স্ত্রী ঝগড়া-বিবাদে লিপ্ত হয়।

এ সময় মায়ের পক্ষ নিয়ে ছোট ছেলে শিপন (২০) এগিয়ে আসলে বড়ভাই রিপন এসে শিপনকে মারপিট করতে উদ্যত হয়। এ সময় রিপন ছোটভাই শিপনকে শিল দিয়ে আঘাত করলে আঘাত লাগে নিহত রাবেয়া বেগমের কপালে। গুরুতর আহত অবস্থায় রাবেয়া খাতুনকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৩ টায় হাসপাতালেই রাবেয়া খাতুনের মৃত্যু হয়েছে।

পুত্রের শিলের আঘাতে মায়ের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ছোটন কান্তি তালুকদার।

ইউপি সদস্য ছোটন কান্তি তালুকদার জানান, আমি এলাকাবাসীর কাছ থেকে শুনেছি শাশুরী-বৌয়ের ঝগড়া হয়েছিলো। ছোট ছেলে মায়ের পক্ষ নেওয়ায় বড় ছেলে বৌয়ের পক্ষ নিয়ে ছোট ভাইকে মারতে গিয়ে শিল উড়িয়ে মারে। সেই শিলের আঘাতেই তার মা আহত হয় পরবর্তীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গিয়েছেন।

এ ব্যাপারে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসআই শামসুল আরেফীন সংবাদ লেখা পর্যন্ত লাশ উদ্ধারের কথা স্বীকার করে জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এখনও এব্যাপারে কোন মামলা দায়ের করা হয় নাই।