বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করায় ইনকিলাবের প্রতি এ্যাকশন

    0
    300

    আমারসিলেট24ডটকম,১জানুয়ারীঃ  ভারতীয় ও বাংলাদেশে সেনাবাহিনীকে জড়িয়ে ভুয়া খবর প্রকাশ করায় রাজধানীর রামকৃষ্ণ মিশন রোডে দৈনিক ইনকিলাব কার্যালয়ে তল্লাশি চালিয়ে ৫টি কম্পিউটার জব্ধ এবং পত্রিকাটির বার্তা সম্পাদক রবিউল্লাহ রবিসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়া প্রেস ও ফটো কম্পোজ বিভাগ সিলগালা করে দিয়েছে পুলিশ। এর আগে ইনকিলাব সম্পাদক এএমএম বাহাউদ্দীনসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে রাজধানীর ওয়ারী থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে (আইসিটি এক্ট) একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ অভিযানের বিষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মো: মাসুদুর রহমান বলেন, একটি মামলার ভিত্তিতে এ অভিযান চালানো হয়েছে। জানা যায়, সাতক্ষীরায় যৌথ অভিযানে ভারতীয় সেনাবাহিনী সহায়তা করছে বলে ১৬ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সরকারের এক ভাষ্যে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে ভারতীয় বাহিনীর উপস্থিতির খবরটি বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। তার পর বৃহস্পতিবার রাতে এ অভিযান চালায় গোয়েন্দা পুলিশ।
    জানা যায়,বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে বার্তা সম্পাদকসহ ৪ জনকে আটক, ছাপাখানা সিলগালা এবং কম্পিউটার জব্দ করে পুলিশ চলে যায়।  প্রেস এবং ফটো বিভাগ পুলিশ সিলগালা করে দিয়েছে। আজ শুক্রবার  পত্রিকা প্রকাশিত হচ্ছে না। শুক্রবার সকালে সবাই বসে আলোচনা করে পরবর্তী করণীয় ঠিক করবে বলে জানা যায়। তবে ছাপাখানা সিলগালা করা হয়নি দাবি করে পুলিশ বলেছে, ছাপাখানার কিছু যন্ত্রপাতি আনা হয়েছিল, তা আফজাল বারীর জিম্মায় দিয়ে দেয়া হয়েছে।
    মাসুদুর রহমান বলেন, এ খবরটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং বিভ্রান্তিকর। তিনি বলেন, এ ধরনের মিথ্যা সংবাদ প্রচারের ফলে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি দেশে বিদেশে চরমভাবে ক্ষুণ্ন হয়। একইভাবে দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরও ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। তাই সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ইনকিলাব পত্রিকার কার্যালয়ে গোয়েন্দা পুলিশ তল্লাশি অভিযান চলানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।
    এ প্রসঙ্গে পত্রিকাটির অফিস সূত্রে থেকে জানানো হয়, বার্তা সম্পাদক রবিউল্লাহ রবি, উপপ্রধান প্রতিবেদক রফিক মোহাম্মদ, কূটনৈতিক প্রতিবেদক আহমেদ আতিক, সিনিয়র প্রতিবেদক আফজাল বারীকে আটক করে। পরে আফজাল বারীকে ছেড়ে দেয়া হয়। বাকি ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পুলিশ কর্মকর্তা মাসুদুরের সূত্রে বলা হয়েছে। তিনি বলেছেন, মামলায় এ পত্রিকাটির সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দিন, প্রকাশক, প্রধান বার্তা সম্পাদক ও এক প্রতিবেদককে আসামি করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে ওয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা মামলা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  প্রসঙ্গত ইনকিলাব সম্পাদক বর্তমানে দেশের বাইরে রয়েছেন।
    জানা যায়, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন এবং সংযুক্ত দণ্ডবিধির ধারায় ওয়ারী থানায় বৃহস্পতিবার ওই থানার উপপরিদর্শক মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের অভিযোগের ভিত্তিতে এ মামলাটি দায়ের করা হয়। পুলিশের অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে দেখা যায়, দৈনিক ইনকিলাবের ওয়েবসাইট ও ছাপানো কপিতে ‘সাতক্ষীরায় যৌথবাহিনীর অপারেশনে ভারতীয় বাহিনীর সহায়তা’ শিরোনামে এক সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, “তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে সাতক্ষীরায় গণআন্দোলন দমাতে সরকার ভারতীয় বাহিনীকে অপারেশনে নামিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অনুমতি সাপেক্ষে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দিল্লির কাছে এ সেনা সহায়তা চেয়ে চিঠি দেয়।”