বিএনপিপন্থী আমলাদের কাজ না করার শপথ !

    0
    214

    আমারসিলেট 24ডটকম,০৮অক্টোবর:দেশে আগামী ২৫ অক্টোবরের পর থেকে জনপ্রশাসনে সরকারের পক্ষে কোনও প্রকারের কাজ না করার শপথ নিয়েছেন প্রধান বিরোধী দল বিএনপির অনুসারী আমলারা। গত মাসে সচিবদের সাথে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনের ঘোষণার পর থেকে এ পর্যন্ত দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে কয়েকদফা গোপন বৈঠক করে আগামী ২৫ অক্টোবরের পর থেকে সরকারকে কোনও ধরনের সহযোগিতা না করার দৃঢ় শপথ নিয়েছেন তারা। বিএনপির শীর্ষস্থানীয় একাধিক বিশ্বস্ত সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সুত্র মতে,নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএনপি চেয়ারপারসনের একজন উপদেষ্টা হ্যাঁ সুচক ইঙ্গিত করে বলেন, সরকারের ধরন ও আচরণ দেখে আগামী ২৬ অক্টোবর থেকে বিএনপি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

    দলীয় সূত্রে জানা যায়, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত জিয়াউর রহমান থেকে শুরু করে দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার তিনটি আমলে যেসব দলীয় কর্মীদের জনপ্রশাসনের উচ্চপর্যায়ে নিয়োগ দেয়া হয়েছে তাদের এবং তাদের প্রতিনিধিদের সাথে ইতোমধ্যেই কয়েক দফা গোপন বৈঠক হয়েছে। এসব বৈঠকে জামায়াতপন্থী আমলারাও ছিলেন বলে জানা সুত্র জানায়। আর এসব বৈঠকের আয়োজন ও সমন্বয় করেছেন দলীয় কয়েকজন দায়িত্বশীল সাবেক আমলা। এসব বৈঠকে খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে তাদের শপথ  করানো হয়েছে বলেও সুত্র থেকে জানা যায়।
    জানা যায়, ইতিমধ্যেই বিএনপিপন্থী পেশাজীবী সংগঠনগুলোর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সাথে রাজধানী ঢাকায়, যশোর ও সিলেটে রাতভর গোপন বৈঠক করেছেন বেগম খালেদা জিয়া। গভীর রাত পর্যন্ত এসব বৈঠকে বর্তমান জনপ্রশাসনের শীর্ষ পর্যায়ে ঘাপটি মেরে থাকা সরকার বিরোধী আমলারাও টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দিয়েছেন বলে জানা গেছে। এছাড়াও চট্রগ্রামের সমাবেশকে সামনে রেখে সেখানেও রাতভর বৈঠক করার পরিকল্পনা রয়েছে এবং গোয়েন্দা নজরদারী এড়াতেই গভীর রাতে এসব বৈঠক করা হচ্ছে বলেও দলীয় সূত্রে জানা গেছে।
    দেশের বাইরেও দু’একটি বৈঠক হয়েছে বলে সুত্র প্রকাশ করছে ,এবং ভিডিও কনফান্সের মাধ্যমে এসব বৈঠকে অংশ নিয়েছেন দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমানও। এছাড়া সৌদি আরব ও থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত দু’টি গোপন বৈঠকে তারেক রহমান সশরীরে অংশ নিয়েছেন বলেও অসমর্থিত একটি সূত্রে জানা গেছে ?
    বিএনপি আগামী ২৫ অক্টোবরের পর নতুন সরকারের ধরন ও আচরণ দেখে তাদের দল পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গেছে। অবশ্য বিএনপি আগেই হুশিয়ারি দিয়ে রেখেছে- সরকার তাদের দাবি অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন না করলে ২৬ অক্টোবর থেকে লাগাতার অসহযোগ কর্মসূচি দিয়ে দেশ অচল করে দেয়া হবে। আর সে আন্দোলনেই প্রকাশ্যে আসবে আমলারাও।
    উল্লেখ্য, আগামী ২৫ অক্টোবর থেকে ২৪ জানুয়ারির মধ্যে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন করার ঘোষণা দিয়েছে ক্ষমতাসীন মহাজোট সরকারের প্রধানমন্ত্রীচ। পক্ষান্তরে বিএনপি ও ১৮ দলীয় জোট শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ার বিষয়ে স্পষ্ট ঘোষণা দিয়ে রেখেছে। বিএনপি বলেছে, প্রয়োজনে ২৫ অক্টোবর থেকে লাগাতার কর্মসূচি দেয়া হবে।সু,এবি