বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে জয় পেল নিউজিল্যান্ড

    0
    210

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৪ফেব্রুয়ারীঃ বিশ্বকাপের ১১তম আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে জয় পেল নিউজিল্যান্ড। স্বাগতিকদের দেয়া ৩৩২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামে শ্রীলংকা। তবে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৩৩ রানেই গুটিয়ে যায় শ্রীলংকা। ফলে ৯৮ রানের বড় জয় পায় নিউজিল্যান্ড। এর আগে ক্রাইস্টচার্চে টসে জিতে নিউজিল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় শ্রীলংকা।

    ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে নিউজল্যান্ড সংগ্রহ করে ৩৩১ রান। ম্যাকালাম ৬৫ ও কোরি এন্ডারসনের ব্যক্তিগত ৭৫ রানের সুবাধে শ্রীলংকাকে ৩৩২ রানের টার্গেট দেয় নিউজল্যান্ড। শ্রীলঙ্কার পক্ষে লাকমাল, মেন্ডিজ দুটি করে এবং কুলাসেকারা ও হেরাথ একটি করে উইকেট নেন।
    ড্যানিয়েল ভেট্টোরির বলে ২৪ রান সংগ্রহ করে বিদায় নেন তিলকরত্নে দিলশান। ১২৪ রানের মাথায় ৬৫ রান করে ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ট হয়ে যান লাহিরু থিরিমান্ন। ড্যানিয়েল ভেট্টোরির বলে শূন্য রানে ফিরে যান মাহেলা জয়াবর্ধনে। দলীয় ১২৯ রানের মাথায় ট্রেন্ট বোল্টের বলে ২৯ রান সংগ্রহ করে এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে পড়েন কুমার সাঙ্গাকারা।

    এডাম মিলনের বলে ১৪ রান সংগ্রহ করে বোল্ড হয়ে যান দিমুথ করুরারাত্ন। এডাম মিলনের ৪ সংগ্রহ করে বিদায় নেন জীভান মেন্ডিস। দলীয় ১৯৬ রানের মাথায় কোরি এন্ডারসনের বলে ১০ রান করে আউট হন নুয়ান কুলাসেকারা। টিম সাউদি বলে কোনো রান না করেই লাসিথ মালিঙ্গা ফিরে যান। টিম সাউদি বলেই ৪৬ রান করে আউট হন এঞ্জেলো ম্যাথুজ।
    শুরুতেই ম্যাকালাম ও মার্টিন গাপটিলের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ভালো অবস্থানে চলে যায় নিউজিল্যান্ড। ম্যাকালামের বিদায়ের পর রানের গতি কিছুটা কমলেও উইলিয়ামসনের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে গতি বাড়ে রানের। শেষ দিকে কোরি অ্যান্ডারসনের ব্যাক্তিগত ৭৫ রানের সুবাধে নিউজল্যান্ডের সংগ্রহ ৩৩১ রান।
    ১১১ রানের মাথায় রঙ্গনা হেরাথের বলে আউট হন ম্যাকালাম। ১০ বাউন্ডারি ও এক ছয়ের সাহায্যে ৪৯ বলে তার সংগ্রহ ৬৫। ১৩৬ রানের মাথায় সুরাঙ্গা লাকমলের বলে ৪৯ রান সংগ্রহ করে ফিরে যান মার্টিন গাপটিল। ১৯৩ রানের মাথায় জীভান মেন্ডিসের বলে দিমুথ করুরারাত্নের হাতে ক্যাচ দিয়ে ৫৭ রান সংগ্রহ করে বিদায় নেন কেন উইলিয়ামসন।

    কেন উইলিয়ামসনের পরপরই ১৪ রান সংগ্রহ করে রান আউট হন রস টেইলর। দলীয় ২৬০ রানের মাথায় সুরাঙ্গা লাকমলের বলে ২৯ রান করে বিদায় নেন গ্রান্ট ইলিয়ট। শেষ বলে নুয়ান কুলাসেকারার বলে ৭৫ রান করে আউট হন কোরি এন্ডারসন। লুক রঞ্চি ২৯ রান করে অপারিজত থাকেন।
    এদিকে টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী দিনেই নিউজিল্যান্ডের মত মাঠে নেমেছে অস্ট্রেলিয়াও। স্বাগতিকদের প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড। এই দু’দলকে চিরপ্রতি দ্বন্দ্বিই বলা হয়। মেলবোর্নে এই ২ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বির খেলা শুরু হয় বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায়।

    এশিয়ার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি হিসেবে অনেক বেশি জনপ্রিয় ভারত-পাকিস্তান। তবে সেখানকার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বির জনপ্রিয়তা খুব বেশি নয়। তারপরও ভারত-পাকিস্তানের মত চিরপ্রতিদ্বন্দ্বির স্বীকৃতিটা নিজেদের গায়ে ভালোভাবে এটে ফেলেছে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড।

    তাই বিশ্বকাপের ১ম দিনেই উপমহাদেশের ২ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বির খেলা দেখার সুযোগ পাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্ব।

    উল্লেখ্য অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে শুরু হল ক্রিকেট দুনিয়ার সবচে’ বড় আসর- ক্রিকেট বিশ্বকাপ।এবারে এই টুর্নামেন্টের সবচে কঠিন গ্রুপে শক্তিশালী দলগুলোর সাথে খেলবে বাংলাদেশ।

    কিন্তু বিশ্বকাপ ক্রিকেটকে ঘিরে প্রত্যেকবার বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে যেরকম আগ্রহ ও উদ্দীপনা দেখতে পাওয়া যায় এবার সেরকম চোখে পড়ছে না।নিউজিল্যান্ড আর শ্রীলংকার খেলা দিয়ে শুরু হল একাদশ ক্রিকেট বিশ্বকাপ।

    অপর স্বাগতিক দেশ অস্ট্রেলিয়ারও খেলা রয়েছে প্রথম দিনেই, তারা খেলবে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে, খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ন’টায়।নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলংকার খেলাটি ক্রাইস্টচার্চে। আর অস্ট্রেলিয়ার খেলাটি মেলবোর্নে, প্রায় এক লাখ দর্শক ধারণক্ষমতার বিশ্বখ্যাত স্টেডিয়ামে।

    বিশ্বকাপের সবচাইতে আকর্ষণীয় ম্যাচ হতে যাচ্ছে ভারত আর পাকিস্তানের ম্যাচটি – যার সব টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে মাত্র ২০ মিনিটে।বলা হচ্ছে, বিশ্বকাপ ক্রিকেট হলো পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম ক্রীড়ানুষ্ঠান – প্রথম দুটি হচ্ছে যথাক্রমে অলিম্পিকস এবং বিশ্বকাপ ফুটবল।

    উপমহাদেশ থেকে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা ও আফগানিস্তানসহ মোট ১৪টি দেশ দু গ্রুপে ভাগ হয়ে এবার বিশ্বকাপে খেলছে।২০১১ সালে গত বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত।এর আগে অস্ট্রেলিয়া চারবার, ভারত দু’বার, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দু’বার, শ্রীলংকা আর পাকিস্তান একবার করে বিশ্বকাপ ক্রিকেট জিতেছে।

    এবার বিশ্বকাপের ফাইনাল ২৯শে মার্চ – হবে মেলবোর্নে।