বিহারী বস্তিতে আগুনে পুড়ে মানুষের মৃত্যুতে গভীর উদ্বেগ

    1
    269

    আমারসিলেট24ডটকম, ১৫জুনঃ পল্লবী থানার বিহারী বস্তিতে আগুনে পুড়ে ঘুমন্ত কয়েকজনমানুষের মৃত্যুতে গভীর উদ্বেগ, ক্ষোভ ও শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, পবিত্র শবেবরাতের রাতে আতশবাজি পোড়ানোর ঘটনা থেকে সৃষ্ট দুই পক্ষের সংঘর্ষের কারণে এই নৃশংস ও করুণ মৃত্যু কোনভাবে মেনে নেয়া যায় না। বিহারী ক্যাম্পের একটি পক্ষ কর্তৃক আতশবাজি ও সংঘর্ষ বন্ধ করার পুলিশের হস্তক্ষেপকে দোষী সাব্যস্ত করা এবং অপরদিকে এটিকে রাজনৈতিক চরিত্র দেয়ার জন্য বিএনপির বিবৃতি শুক্রবার মধ্যরাত থেকে দিনব্যাপী চলা সংঘর্ষের ঘটনাটিকে রহস্যাবৃত করেছে। এতে প্রকৃত বিষয়টি আড়াল হয়ে ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট বিবাদমান পক্ষকে চিহ্নিত করা এবং দুষ্কৃতকারীরা পার পেয়ে যাবে। বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বিহারী ক্যাম্পে সংঘর্ষের মূল কারণ এবং আগুনে দগ্ধ হয়ে নিরীহ মানুষের মৃত্যুর পেছনে আসলে কারা জড়িত তা উদ্ঘাটনে সংশি¬ষ্ট পুলিশ প্রশাসন ও সরকারের প্রতি আহ্বান এবং দোষীদের চিহ্নিত করে দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জোর দাবি জানান।

    অপরদিকে সরদার ফজলুল করিমের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন সকাল ১১.৩০ মিনিটে কমিউনিস্ট পার্টি কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে প্রয়াত সরদার ফজলুল করিমের মরদেহে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে পার্টির পক্ষ থেকে তাঁর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য কামরূল আহসান, পার্টির কেন্দ্রীয় বিকল্প সদস্য আমিরুল হক আমিন, সাব্বাহ আলী খান কলিন্সসহ নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পুষ্পার্ঘ অর্পণের পর পার্টি নেতৃবৃন্দ মুষ্টিবদ্ধ হাত তুলে প্রয়াত এই জ্ঞানবিদের প্রতি ‘রেড স্যালুট’ প্রদর্শন করেন।