বেনাপোলের পুটখালী সীমান্তে দুই বাংলাদেশী হতাহত

    0
    223

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৯ফেব্রুয়ারী,এম ওসমানঃ পুটখালী সীমান্তের ইছামতি নদী থেকে বৃহস্পতিবার সকালে শরিফুল ইসলাম নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করে বিজিবি সদস্যরা। নিহত শরিফুল নড়াইলের কালিয়া থানার পারুলিয়া গ্রামের হালিমের ছেলে।

    ২৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পুটখালী বিওপির নায়েক সুবেদার সামছুর রহমান জানান, অসুস্থ শরিফুল ইসলাম পরিবারের সঙ্গে চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়েছিল। সেখানে চিকিৎসাধিন অবস্থায় মারা গেলে পরিবারের সদস্যরা অবৈধভাবে তার লাশ নিয়ে পুটখালী সীমান্তপথে ইছামতি নদী পার হয়ে বাংলাদেশে আসছিলেন। এ সময় সেখানে টহলরত বিজিবি সদস্যরা দেখতে পেয়ে তার লাশ উদ্ধার করে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

    বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি অপূর্ব হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিজিবির মাধ্যমে খবর পেয়ে ইছামতি নদীর পাড় থেকে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

    এদিকে, যশোরের শার্শা সীমান্তে বিএসএফ-এর স্পিডবোটের আঘাতে আরিফ (২৪) নামে বাংলাদেশী এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছে।

    পুটখালী সীমান্তের ইছামতি নদীতে বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটায় বিএসএফ। আহত আরিফ বেনাপোল পোর্ট থানার বারোপোতা শিবনাথপুর গ্রামের গোলাম হোসেনের ছেলে।

    ২৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পুটখালী বিওপির নায়েক সুবেদার সামছুর রহমান জানান, সকালে আরিফ ভারত থেকে গরু নিয়ে ইছামতি নদী সাঁতরিয়ে বাংলাদেশে আসছিলেন। এ সময় পুটখালী সীমান্তের বিপরীতে ভারতের আংরাইল বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা স্পিডবোট নিয়ে তাকে ধাওয়া দেয়। স্পিডবোটের পাখার আঘাতে সে গুরুতর জখম হয়। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে যশোরের একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।