বোন-দুলাভাইকে বেঁধে ছাত্রীকে গণধর্ষণঃভিডিও করে চাঁদা দাবি

    1
    301

    আমারসিলেট24ডটকম,০২নভেম্বরঃ সাভারে বোন ও দুলাভাইকে বেঁধে রেখে এক স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের পর তার ভিডিও চিত্র ধারণ করেছে বখাটেরা।

    এ ঘটনার পর স্কুলছাত্রীর পরিবারের কাছে চাঁদা দাবি করা হয়। চাঁদা না দিলে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার্র হুমকি দিচ্ছে বখাটেরা।

    শনিবার দুপুরে সাভার পৌর এলাকার আনন্দপুর এলাকায় ফজলুল হকের মালিকানাধীন সরদার ভিলায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

    হুমকি ও চাঁদাদাবির মুখে রোববার বিকেলে এ ঘটনাটি প্রকাশ করেন নির্যাতিতার পরিবার। নির্যাতিতা ওই স্কুলছাত্রী স্থানীয় একটি স্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী।

    এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রীর দুলাভাই বাবুল মিয়ার খোঁজে এসে একই এলাকার দুই বখাটে আজিজ ও কবির তার বাড়িতে ঢুকে স্ত্রীসহ তাকে বেঁধে ফেলে।

    এ সময় ওই বাড়িতে থাকা ওই ছাত্রীর ওপর পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে তার ভিডিও চিত্র ধারণ করে বখাটেরা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

    বিষয়টি নিশ্চিত করে সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ  মোস্তফা কামাল জানান, এখন পর্যন্ত নির্যাতিতা পরিবারের পক্ষে কেউ থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ করেননি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    এলাকাবাসী সূত্র বলেছে, ভবিষ্যতে ইন্টারনেটে ওই ভিডিও ছড়িয়ে দেবার ভয় দেখিয়ে বখাটেদের পক্ষে মামলা না করে বিষয়টি সমাঝোতা করতে চাপ দেয়া হচ্ছে।

    মামলা করলে ওই ভিডিও চিত্র ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বাবুল মিয়া।

    এদিকে ঘটনার পর ওই বাড়িতে গিয়ে নির্যাতিতা পরিবারটিকে আইনগত সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে মহিলা পরিষদ।

    মহিলা পরিষদ নেত্রী পারভীন আক্তার জানান, লোক-লজ্জার ভয়ে নির্যাতিতা পরিবারটি মামলা করতে সাহস পাচ্ছে না। এলাকার প্রভাবশালী একটি মহল বখাটেদের পক্ষে সমাঝোতার প্রস্তাব দিচ্ছেন বলে জানিয়েছে মহিলা পরিষদ।সুত্রঃনতুনবার্তা