ভাবিকে অপহরণ-ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে দেবরের মৃত্যুদণ্ড

    2
    264

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১ মার্চঃ ভাবিকে অপহরণ করে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে ঢাকার একটি আদালত দেবরকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে।

    নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক প্রায় নয় বছর আগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

    দেবর আলমগীরকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার পাশাপাশি অপহরণ ও ধর্ষণের ঘটনায় ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

    মামলার অপর দুই আসামি দেবর আলমগীরের দু’জন বন্ধুকেও ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ওই আদালত।

    দেবর আলমগীর ও তার বন্ধু রিপনকে রায়ের পর কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। আরেক বন্ধু আসামি মিলন পলাতক রয়েছেন।

    উল্লেখ্য মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, সৌদি আরব প্রবাসী শাহ আলমের স্ত্রী মুন্নী আক্তারকে বিভিন্ন সময়ে ‘অশালীন কু-প্রস্তাব’ দিয়ে আসছিলেন দেবর আলমগীর। কিন্তু প্রবাসীর স্ত্রী তাতে সাড়া দেননি।

    পরে একদিন ভাবীকে ডাক্তার দেখানোর কথা বলে দেবর আলমগীর তাকে রাজধানী ঢাকার দোহারের জয়পাড়ায় নিয়ে যায়। সেখানে দেবর আলমগীরসহ তার অপর দুজন বন্ধু ভাবীকে ধর্ষণ করে।

    ঘটনা প্রকাশের ভয়ে তাকে হত্যা করে তার পেট কেটে শরীরে ইট বেঁধে নদীতে ফেলে দেওয়া হয়।

    ঘটনার কয়েকদিন পর ইছামতি নদী থেকে পুলিশ ভাবীর গলিত লাশ উদ্ধার করে।