ভারতে সেজদারত্ব নামাজীদের লাথিমারা পুলিশের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা

0
585

আমার সিলেট ডেস্ক: ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে রাস্তার পাশে জুমার নামাজ আদায়রত মুসল্লিদের ওপর প্রকাশ্যে নির্যাতন চালিয়েছে সেদেশের পুলিশ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ দৃশ্যের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেখা যায়, নামাজরত মুসল্লিদেরকে পুলিশ কর্মকর্তা লাথি ও বাহিনীর কায়দায় প্রহার করছেন। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ইন্ডিয়া টুডে। তারা বলছে, ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানীর ইন্দারলোক এলাকায়। রিপোর্টে আরও বলা হয়, শুক্রবার ইন্দারলোক এলাকায় একটি মসজিদে নামাজ আদায় করতে জড়ো হন বিপুল সংখ্যক মুসল্লি। কিন্তু তাদের সংখ্যা এত বেশি হয়ে যায় যে, মসজিদের ভিতরে ও বাইরে স্থান সংকুলান হচ্ছিল না। এতে কিছু মুসল্লি রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে যান নামাজ আদায়ে। অল্প সময়ের মধ্যে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন পুলিশের কয়েকজন কর্মকর্তা।

তখনও নামাজ শেষ হয়নি। সেজদারত অবস্থায় অবস্থায় মুসল্লিদের পিছন থেকে আচমকা লাথ ও নানা পুলিশ কায়দায় প্রহার করতে থাকেন তারা। এ সময় ওই পুলিশ কর্মকর্তাদের ঘেরাও করে ফেলে জনতা। তাদের কর্মকাণ্ডের বিরোধিতা করতে থাকেন।

ইন্ডিয়া টুডের মতে, তাৎক্ষণিকভাবে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে। ঘটনাটির ভিডিও শেয়ার করে রাজ্যসভায় কংগ্রেসের এমপি ইমরান প্রতাপগারহি বলেন, নামাজ আদায়রত মুসলিমকে প্রহার করা দিল্লি পুলিশের এই সদস্য সম্ভবত মানবতার মৌলিক নীতি জানেন না। এই পুলিশ সদস্যের মনে এই ঘৃণা কোথা থেকে এলো? যথাযথ ধারার অধীনে এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করার জন্য দিল্লি পুলিশকে অনুরোধ করি। একই সঙ্গে তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার আহ্বান জানাই। পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (উত্তর) এম.কে মীনা বলেন, এরই মধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। ওই কর্মকর্তাকে তাৎক্ষণিকভাবে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ডিসিপ্লিনারি অ্যাকশন নেয়া হবে।