মদ্যপ অবস্থায় নিজ ঔরসজাত মেয়েকে ধর্ষণ!

    0
    226

    আমারসিলেট24ডটকম,০৮জুনঃ ধর্ষণ করে খুন করার অভিযোগে এক হোটেল ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে ভারতের পুলিশ৷ নিজ ঔরসজাত মেয়েকে ধর্ষণের মত ঘটনা ঘটিয়েছন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জের সারিমাম গ্রামে৷ পুলিশের সুত্র থেকে জানিয়েছে, ধৃত ব্যবসায়ীর নাম সুশীল মণ্ডল। প্রতিবেশীদের সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার রাতে মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফেরেসুশীল মণ্ডল৷ তালম্য।ওই হোটেল ব্যবসায়ীর স্ত্রী আত্মীয়েরবাড়িতে বেড়াতে যাওয়ায় তার বাড়িতে ছিলেন মেয়ে মিনু ও ছেলে সতীশ৷ অতিরিক্ত মদ্যপান করেবাড়ি ফেরা নিয়ে ছেলে ও মেয়ের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বচসা হয় তার৷ছেলে সতীশ মণ্ডলের সূত্রে পুলিশ জানিয়েছে, বাবার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হওয়ায় পাশের ঘরে গিয়ে শুয়ে পড়ে সে৷

    সে কারনে বাবা ও মেয়ে একই ঘরে শুয়েছিলেন৷সকালে ঘুম থেকে উঠে গিয়ে বোনকে বিছানায় অস্বাভাবিক অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে সে৷ পাশেই বসা ছিলেন বাবাসুশীল মণ্ডল৷ সন্দেহ হওয়ায় প্রতিবেশীদের ডাকেন সতীশ৷ খবর চলে যায় থানায়৷প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে ১৬ বছরের মিনুমণ্ডলকে৷ ধৃত সুশীল মণ্ডলের শরীরের একাধিক চিহ্ন থেকে অনুমান হচ্ছে বাবার বর্বরোচিত পশু সুলভ এই ঘটনার হাত থেকে নিস্তার পাবার জন্য নানাভাবে চেষ্টাও চালিয়েছিল মেয়েটি৷ কিন্তু পারেনি৷

    হয়তো ঘটনা জানাজানি হয়ে যাওয়ার ভয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয় তাকে৷ ছেলে সতীশ মণ্ডলের অভিযোগের ভিত্তিতে বাবা সুশীল মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ পুলিশি জেরার মুখে নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করেছে সে৷ আজ রোববার তাকে আদালতে হাজির করার কথা পুলিশের৷ সূত্রঃওয়েবসাইট